Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
Legal Study
Tuesday , December 18 2018

Bar Council Exam, Crpc, Section 127 to 132

বার কাউন্সিল পরীক্ষার প্রস্তুতি
ফৌজদারী কার্যবিধি, ১৮৯৮
(১৮৯৮ সালের ৫নং আইন)
[ফ্রী ভার্সন]
নোটিশঃ আপনি ফ্রী ভার্সন ব্যবহার করছেন। প্রিমিয়াম ভার্সন ব্যবহার করতে চাইলে 01729820646, 01703924452, 01688107393 (সকাল ১০.০০টা থেকে রাত ১০.০০টা) এই নাম্বারগুলোতে কল দিয়ে প্রিমিয়াম ভার্সনে নিবন্ধন করে নিন।

লগইন বা নিবন্ধন করতে ক্লিক করুন

লগইন বা নিবন্ধন করতে ক্লিক করুন

নির্দেশনাঃ আপনি যদি আমাদের প্রিমিয়াম মেম্বার হয়ে থাকেন তাহলে নিচের লগইন ফরম ব্যবহার করে ইউজার নেইম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন। যারা ফেইবুকের মাধ্যমে রেজিষ্ট্রেশন করেছেন তারা লগইন ফরমের নিচে ফেইসবুক লগইন বাটনে ক্লিক করে প্রবেশ করুন। আর যারা নতুন নিবন্ধন করতে চান তারা লগইন ফরমের নিচে নির্দেশিত পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

ফেইসবুক লগইন

ফেইসবুকের মাধ্যমে নিবন্ধনঃ ফেইসবুকের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে চাইলে নিচের ফেইসবুক রেজিষ্ট্রেশন বাটনে ক্লিক করুন। (বিঃদ্রঃ সফলভাবে রেজিষ্ট্রেশন করার পর এপ্রুভালের জন্য আমাদের হট লাইন ০১৭২৯৮২০৬৪৬, ০১৭২৯৮২০৬৪৬, ০১৭০৩৯২৪৪৫২, ০১৬৮৮১০৭৩৯৩ নাম্বারে কল দিন)

ফেইসবুক রেজিষ্ট্রেশন

ফেইবুকের মাধ্যমে লগইন না হলে কি করব?

আপনি যদি ফেইসবুকের মাধ্যমে রেজিষ্ট্রেশন করতে না পারেন তাহলে, নিচের ফরমটি পূরণ করে আপনি আপনার রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করতে পারেন। (বিঃদ্রঃ পরবর্তীতে লগইন করার জন্য ইউজার নেইম ও পাসওয়ার্ড সংরক্ষন করুন এবং এপ্রুভালের জন্য আমাদের হট লাইন ০১৭২৯৮২০৬৪৬, ০১৭২৯৮২০৬৪৬, ০১৭০৩৯২৪৪৫২, ০১৬৮৮১০৭৩৯৩ নাম্বারে কল দিন)

REGISTRATION FORM

কেন অনলাইনে জয়েন করব?

১) আপনি হয়তো বার কাউন্সিল পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য ফিজিক্যালি কোচিং করেন। কেউ স্থান, কাল, পাত্র ভেদে ৩,০০০ থেকে ১৫,০০০ টাকায় ভর্তি হয়েছেন কিন্তু, সেখানে জ্যাম ঠেলে (বিশেষ করে ঢাকা শহরে) কোচিং করতে যাওয়া-আসা একটা বিরক্তিকর ও সময়ের ব্যাপার। আপনার জন্য আমাদের অনলাইন গাইডলাইন ভীষণ হেল্পফুল হবে। কেননা এটা একটা ভালো বইয়ের সমতুল্য।

২) একদল মেধাবী আইনজীবী প্রতিনিয়ত তথ্য উপাত্ত আপডেট করে থাকেন অর্থ্যাৎ আপনি নির্ভুল শিখবেন।

৩) আপনি হয়তো শিক্ষানবীশ আইনজীবী। কিন্তু কোর্টের ব্যস্ততায় পড়ার সময় সঙ্কুচিত। ফেসবুক ব্রাউজিং এর পাশাপাশি একটু নিরিবিলি সময় পেলেই ব্যস্ত হয়ে পড়তে পারেন আমাদের অনলাইনে।

৪) আপনি হয়তো চাকুরীজীবী। ফিজিক্যালি কোচিং এ ভর্তি হবার সুযোগ নেই। সময়ও কম। সে কারনে ই-লার্নিং আপনার জন্য সর্বোত্তম পন্থা।

৫) আমাদের রয়েছে দক্ষ অনলাইন কর্মী যারা আপনাকে সকাল ১০.০০ টা থেকে রাত ১০.০০ পর্যন্ত অনলাইন সেবা প্রদান করবেন।

৬) আমাদের ই-লার্নিং সেবাটি এন্ড্রয়েড মোবাইলেও ব্যবহার করা যায় সাবলীলভাবে এবং ২৪ ঘন্টাই ব্যবহার করতে পারবেন।

৭) আমরা আর্ন্তজাতিক মানের সার্ভার (ইউএসএ সার্ভার) ব্যবহার করি অর্থ্যাৎ সার্ভার ডাউন হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই।

৮) আমাদের রয়েছে আর্ন্তজাতিক মানের কমোডো এস.এস.এল সার্টিফিকেট সুতরাং আপনার কম্পিউটার বা মোবাইল থাকবে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত।

এরকম অসংখ্য কারণেই আপনি আমাদের সাথে জয়েন করতে পারেন।

ই-লার্নিং সম্পর্কে বিস্থারিত জানতে ক্লিক করুন

ই-লার্নিং সম্পর্কে বিস্থারিত জানতে ক্লিক করুন

ই-লানিং এর মাধ্যমে কি কি পাব?

  • ৩০০+ মডেল টেষ্ট (আইনগত ব্যাখ্যাসহ);
  • ৩০০০+ ইউনিক এম.সি.কিউ;
  • বিষয়ভিত্তিক মডেল টেষ্ট;
  • বিষয়ভিত্তিক ব্যাখ্যামূলক প্রশ্ন;
  • ধারাভিত্তিক ভিডিও লেকচার;
  • লিখিত পরীক্ষার জন্য বিষয়ভিত্তিক হেন্ডনোট;
  • মৌখিক পরীক্ষার জন্য সার্বিক সহযোগীতা।

আইন সংক্রান্ত ভিডিও লেকচার কিভাবে দেখব?

আমাদের YouTube চ্যানেলে প্রতিদিন নতুন নতুন ভিডিও আপলোড করা হবে। YouTube চ্যানেলে Subscribe না করলে নতুন ভিডিও লেকচারের Notifications পাবেন না। ফ্রী ভিডিও লেকচারের Notifications পেতে নিচের “সাবক্রাইব করুন” বাটনে ক্লিক করুন।

সাবসক্রাইব করুন

বিঃদ্রঃ যারা মোবাইলে ব্যবহার করবেন তারা Google Play Store এ প্রবেশ করে Legal Study লিখে সার্চ দিন। সার্চ দেওয়ার পর সার্চ রেজাল্টে Legal Study (A True Art of Learning) এর নিচে Advocate Almonsur লেখা দেখতে পাবেন। এটিই হচ্ছে আমাদের অফিসিয়াল Google Apps অথবা নিচের GET IT ON Google Play বাটনে ক্লিক বা স্পর্শ করে Apps ডাউনলোড করতে পারেন।

ফৌজদারী কার্যবিধির সংশ্লিষ্ট ধারা
(ধারা ১২৭ থেকে ১৩২ পর্যন্ত)
সর্তকবানীঃ যেহেতু ফৌজদারী কার্যবিধি ইংরেজী ভাষায় প্রণীত হয়েছে সেহেতু, অত্র আইন পড়ার সময় অবশ্যই ইংরেজীকে প্রাধান্য দিতে হবে। এখানে আইনের যে বাংলায় অনুবাদ দেওয়া হয়েছে তাতে ভুল-ভ্রান্তি থাকাটাই স্বাভাবিক কিন্তু, অত্র আইনের যে ইংরেজী ভার্সন দেওয়া হয়েছে তা প্রায় শতভাগ শুদ্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে।

নির্দেশনাঃ প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা, এই অংশে ফৌজদারী কার্যবিধির সংশ্লিষ্ট ধারা এবং ধারাভিত্তিক বিশ্লেষণাত্মক আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি নিবন্ধিত ফ্রী মেম্বার বা নিবন্ধিত না হয়ে থাকেন তাহলে ফৌজদারী কার্যবিধির ধারাগুলো সম্পর্কে একটি ধারণা পাবেন। শুধুমাত্র প্রিমিয়াম মেম্বারদের জন্য বিশ্লেষণাত্মক অংশটুকু ধারাগুলোর নিচে প্রদর্শিত হবে। মনে রাখা ভাল, “আইন হচ্ছে বুঝার বিষয়, মুখস্তের বিষয় নয়”।

ধারা ১২৭। ম্যাজিষ্ট্রেট অথবা পুলিশ অফিসারের আদেশের জন্য সমাবেশ ছত্রভঙ্গ হবে (Assembly to disperse on command of Magistrate or police officer):

(১) কোন ম্যাজিষ্ট্রেট অথবা কোন থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার কোন বে-আইনী সমাবেশ অথবা সর্ব সাধারণের শান্তি বিনষ্ট হওয়ার কারণ ঘটাতে পারে এরূপ পাঁচ বা ততোধিক ব্যক্তির সমন্বয়ে গঠিত কোন সমাবেশের প্রতি ছত্রভঙ্গ হওয়ার আদেশ দিতে পারবেন, এবং অতঃপর উক্ত সমাবেশের সদস্যদের পক্ষে অনুরূপভাবে ছত্রভঙ্গ হওয়া কর্তব্যে পরিণত হবে। [Any (Note-1) Executive Magistrate or officer in charge of a police-station may command any unlawful assembly, or any assembly of five or more persons likely to cause a disturbance of the public peace, to disperse; and it shall thereupon be the duty of the members of such assembly to disperse accordingly.]

(২) বাতিল। [Omitted by the Schedule of the Adaptation of Central Acts and Ordinances Order, 1949.]

Note-1: The words “Executive Magistrate” were substituted for the word “Magistrate” by section 46 of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

ধারা ১২৮। সমাবেশের জন্য অসামরিক শক্তি প্রয়োগ (Use of civil force to disperse): এরূপ আদেশ প্রাপ্তির পর এরূপ কোন সমাবেশ যদি ছত্রভঙ্গ না হয় অথবা এরূপে আদেশ প্রাপ্ত না হয়ে উক্ত সমাবেশ যদি এরূপ আচরণ করে, যার ফলে ছত্রভঙ্গ না হওয়ার সংকল্প প্রকাশ পায়, তাহলে কোন ম্যাজিষ্ট্রেট বা কোন থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার বলপূর্বক উক্ত সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করার জন্য অগ্রসর হতে পারবেন এবং এই উদ্দেশ্যে বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনীর অফিসার, সৈন্য, নাবিক বা বৈমানিক নয়, এরূপ কোন পুরুষ ব্যক্তি সাহায্য দাবী করতে পারবেন এবং প্রয়োজনবোধে উক্তরূপ সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করার উদ্দেশ্যে অথবা আইন মোতাবেক শাস্তি দেওয়ার উদ্দেশ্যে যারা উহাতে অংশগ্রহণ করে, তাদেরকে গ্রেফতার বা আটক করতে পারে। [If, upon being so commanded, any such assembly does not disperse, or if, without being so commanded, it conducts itself in such a manner as to show a determination not to disperse, any (Note-1) Executive Magistrate or officer in charge of a police-station, may proceed to disperse such assembly by force, and may require the assistance of any male person, not being an officer, soldier, sailor or airman in the armed forces of Bangladesh (Note-2) (***) for the purpose of dispersing such assembly, and, if necessary, arresting and confining the persons who form part of it, in order to disperse such assembly or that they may be punished according to law.]

Note-1: The words “Executive Magistrate” were substituted for the word “Magistrate” by section 47 of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-2: The words, letter commas and figure `or a volunteer enrolled under the Indian Volunteers Act, 1869, and acting as such,` were omitted by section 3 and 2nd Schedule of the Bangladesh Laws (Revision And Declaration) Act, 1973 (Act No. VIII of 1973)

ধারা ১২৯। সামরিক শক্তি প্রয়োগ (Use of military force): এরূপ কোন সমাবেশ যদি অন্য কোন উপায়ে ছত্রভঙ্গ করা না যায় এবং জন নিরাপত্তার জন্য যদি উহা ছত্রভঙ্গ করা প্রয়োজন বলে বিবেচিত হয়, তাহলে উপস্থিত সর্বোচ্চ পদের ম্যাজিষ্ট্রেট অথবা মহানগরী এলাকার পুলিশ কমিশনার সামরিক শক্তি দ্বারা উহা ছত্রভঙ্গ করাতে পারবেন। [If any such assembly cannot be otherwise dispersed, and if it is necessary for the public security that it should be dispersed, the (Note-1) Executive Magistrate of the highest rank who is present (Note-2) or the Police Commissioner in (Note-3) a Metropolitan Area may cause it to be dispersed by military force.]

Note-1: The words “Executive Magistrate” were substituted for the word “Magistrate” by section 48 of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-2: The words `or the Police Commissioner in the Dacca Metropolitan Area` were inserted by the Schedule of the Dacca Metropolitan Police (Amendment) Ordinance, 1976 (Ordinance No. LXIX of 1976)

Note-3: The letter and words `a Metropolitan Area` were substituted, for the words `the Dacca Metropolitan Area` by the Schedule III of the Chittagong Metropolitan Police Ordinance, 1978 (Ordinance No. XLVIII of 1978)

ধারা ১৩০। জন সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করার জন্য ম্যাজিষ্ট্রেট কর্তৃক আহুত বাহিনীর অধিনায়কের কর্তব্য (Duty of officer commanding troops required by Magistrate to disperse assembly):

(১) যখন কোন ম্যাজিষ্ট্রেট বা পুলিশ কমিশনার সামরিক শক্তি প্রয়োগ করে এরূপ কোন সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন, তখন তিনি বাংলাদেশের সেনাবাহিনীর কোন সংখ্যক সৈন্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত কোন কমিশন বা ননকমিশন্ড অফিসার সামরিক শক্তি প্রয়োগ করে এরূপ কোন সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করার কাজে এবং যারা উক্ত সমাবেশে অংশ গ্রহণ করে, তাদেরকে ম্যাজিষ্ট্রেটের বা পুলিশ অথবা প্রয়োজনবোধে সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করার জন্য বা আইনানুসারে শাস্তি দেওয়ার জন্য তাদেরকে গ্রেফতার করতে পারবেন। [When (Note-1) an Executive Magistrate (Note-2) or the Police Commissioner determines to disperse any such assembly by military force, he may require any commissioned or non-commissioned officer in command of any soldiers in the Bangladesh Army (Note-3) (* * *) to disperse such assembly by military forced, and to arrest and confine such persons forming part of it as the Magistrate (Note-2) or the Police Commissioner may direct, or as it may be necessary to arrest and confine in order to disperse the assembly or to have them punished according to law.]

(২) এরূপ প্রত্যেকটি অফিসার নিজে যে উপায়ে ভালো বলে মনে করেন সেই উপায়ে ম্যাজেষ্ট্রেটের উক্ত রূপ দাবী প্রতিপালন করবেন, তবে এরূপ করতে গিয়ে সমাবেশ ছত্রভঙ্গ এবং লোকজন গ্রেফতার ও আটকের সাথে সামঞ্জস্য রেখে যথাসম্ভব কম শক্তি প্রয়োগ এবং ব্যক্তি ও সম্পত্তির কম ক্ষতিসাধন করবেন। (Every such officer shall obey such requisition in such manner as he thinks fit, but in so doing he shall use as little force, and do as little injury to person and property, as may be consistent with dispersing the assembly and arresting and detaining such persons.)

Note-1: The words “an Executive Magistrate” were substituted for the word “a Magistrate” by section 49 of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-2: The words `or the Police Commissioner` were inserted by the Schedule of the Dhaka Metropolitan Police (Amendment) Ordinance, 1976` (Ordinance No. LXIX of 1976)

Note-3: The words, commas and figure `or of any Volunteers enrolled under the Indian Volunteers Act, 1869,` were omitted by section 3 and 2nd Schedule of the Bangladesh Laws (Revision And Declaration) Act, 1973 (Act No. VIII of 1973)

ধারা ১৩১। জন সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করতে কমিশনপ্রাপ্ত সামরিক অফিসারের ক্ষমতা (Power of commissioned military officers to disperse assembly): যখন এরূপ কোন সমাবেশ দ্বারা জন নিরাপত্তা সুস্পষ্টভাবে বিপদগ্রস্ত হয় এবং যখন কোন ম্যাজিষ্ট্রেটের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করা যায় না তখন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কোন কমিশনপ্রাপ্ত অফিসার সামরিক শক্তি প্রয়োগ করে এরূপ সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করতে পারেন এবং এরূপ ছত্রভঙ্গ করার অথবা আইনানুসারে শাস্তি দেওয়ার জন্য উক্ত সমাবেশে অংশগ্রহণকারী কোন ব্যক্তিকে গ্রেফতার ও আটক করতে পারবেন; তবে এই ধারা অনুসারে কাজ করার সময় তার পক্ষে যদি কোন ম্যাজিষ্ট্রেটের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করা সম্ভব হয়, তাহলে তিনি যোগাযোগ স্থাপন করবেন এবং অতঃপর কার্য চালিয়ে যাওয়া বা না যাওয়া সম্পর্কে তার পরামর্শ অনুসরণ করবেন। (When the public security is manifestly endangered by any such assembly, and when (Note-1) no Executive Magistrate can be communi-cated with, any commissioned officer of the Bangladesh Army may disperse such assembly by military force, and may arrest and confine any persons forming part of it, in order to disperse such assembly or that they may be punished according to law; but if, while he is acting under this section, it becomes practicable for him to communicate with (Note-2) an Executive Magistrate, he shall do so, and shall thenceforward obey the instructions of the Magistrate as to whether he shall or shall not continue such action.)

Note-1: The words “no Executive Magistrate” were substituted for the words “no Magistrate” by section 50 of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-2: The words “an Executive Magistrate” were substituted for the words “a Magistrate” by section 50 of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

ধারা ১৩২। এই অধ্যায়ের অধীন কৃতকার্যের জন্য ফৌজদারীতে সোপর্দকরণের বিরুদ্ধে রক্ষাকবচ (Protection against prosecution for acts done under this Chapter): সরকারের অনুমোদন ব্যতিত কোন ব্যক্তির বিরুদ্ধে এই অধ্যায়ের অধীনকৃত বলে কথিত কোন কার্যের জন্য কোন ফৌজদারী আদালতে মামলা দায়ের করা যেতে পারে না; এবং (No prosecution against any person for any act purporting to be done under this Chapter shall be instituted in any Criminal Court, except with the sanction of the Government; and)

ক) এই অধ্যায়ের অধীন সরল বিশ্বাসে কার্য পরিচালনাকারী কোন ম্যাজিষ্ট্রেট বা পুলিশ অফিসার; (no Magistrate or police-officer acting under this Chapter in good faith,)

খ) ১৩১ ধারার অধীন সরল বিশ্বাসে কার্য পরিচালনাকারী কোন অফিসার; (no officer acting under section 131 in good faith,)

গ) ১২৮ অথবা ১৩০ ধারার অধীন প্রদত্ত রিকুইজিশন অনুযায়ী সরল বিশ্বাসে কোন কার্য পরিচালনাকারী ব্যক্তি, এবং (no person doing any act in good faith, in compliance with a requisition under section 128 or section 130, and)

ঘ) যে আদেশ তিনি মানতে বাধ্য, এরূপ কোন আদেশ পালন করতে গিয়ে কৃত কোন কার্য পরিচালনাকারী কোন নিম্ন পদস্থ অফিসার বা সৈনিক বা স্বেচ্ছাসেবক উক্ত কার্য দ্বারা কোন অপরাধ করেছে বলে ধরা যাবে না; (no inferior officer, or soldier, or volunteer, doing any act in obedience to any order which he was bound to obey, shall be deemed to have thereby committed an offence:)

শর্ত এই যে, সরকারের অনুমোদন ব্যতিত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কোন অফিসার বা সৈনিকের বিরুদ্ধে কোন ফৌজদারী আদালতে এরূপ কোন মামলা দায়ের করা যাবে না। (Provided that no such prosecution shall be instituted in any Criminal Court against any officer or soldier in the Bangladesh Army except with the sanction of the Government.)

<<< পূর্ববর্তী পরবর্তী >>>

Check Also

পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী এবং জীবনযাত্রা সংশ্লিষ্ট ব্যয়ের বিবরণী, করবর্ষঃ ২০১৮-২০১৯