Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
Legal Study
Tuesday , December 18 2018

Bar Council Exam, Crpc, Section 154 to 176

বার কাউন্সিল পরীক্ষার প্রস্তুতি
ফৌজদারী কার্যবিধি, ১৮৯৮
(১৮৯৮ সালের ৫নং আইন)
[ফ্রী ভার্সন]
নোটিশঃ আপনি ফ্রী ভার্সন ব্যবহার করছেন। প্রিমিয়াম ভার্সন ব্যবহার করতে চাইলে 01729820646, 01703924452, 01688107393 (সকাল ১০.০০টা থেকে রাত ১০.০০টা) এই নাম্বারগুলোতে কল দিয়ে প্রিমিয়াম ভার্সনে নিবন্ধন করে নিন।

লগইন বা নিবন্ধন করতে ক্লিক করুন

লগইন বা নিবন্ধন করতে ক্লিক করুন

নির্দেশনাঃ আপনি যদি আমাদের প্রিমিয়াম মেম্বার হয়ে থাকেন তাহলে নিচের লগইন ফরম ব্যবহার করে ইউজার নেইম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন। যারা ফেইবুকের মাধ্যমে রেজিষ্ট্রেশন করেছেন তারা লগইন ফরমের নিচে ফেইসবুক লগইন বাটনে ক্লিক করে প্রবেশ করুন। আর যারা নতুন নিবন্ধন করতে চান তারা লগইন ফরমের নিচে নির্দেশিত পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

ফেইসবুক লগইন

ফেইসবুকের মাধ্যমে নিবন্ধনঃ ফেইসবুকের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে চাইলে নিচের ফেইসবুক রেজিষ্ট্রেশন বাটনে ক্লিক করুন। (বিঃদ্রঃ সফলভাবে রেজিষ্ট্রেশন করার পর এপ্রুভালের জন্য আমাদের হট লাইন ০১৭২৯৮২০৬৪৬, ০১৭২৯৮২০৬৪৬, ০১৭০৩৯২৪৪৫২, ০১৬৮৮১০৭৩৯৩ নাম্বারে কল দিন)

ফেইসবুক রেজিষ্ট্রেশন

ফেইবুকের মাধ্যমে লগইন না হলে কি করব?

আপনি যদি ফেইসবুকের মাধ্যমে রেজিষ্ট্রেশন করতে না পারেন তাহলে, নিচের ফরমটি পূরণ করে আপনি আপনার রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করতে পারেন। (বিঃদ্রঃ পরবর্তীতে লগইন করার জন্য ইউজার নেইম ও পাসওয়ার্ড সংরক্ষন করুন এবং এপ্রুভালের জন্য আমাদের হট লাইন ০১৭২৯৮২০৬৪৬, ০১৭২৯৮২০৬৪৬, ০১৭০৩৯২৪৪৫২, ০১৬৮৮১০৭৩৯৩ নাম্বারে কল দিন)

REGISTRATION FORM

কেন অনলাইনে জয়েন করব?

১) আপনি হয়তো বার কাউন্সিল পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য ফিজিক্যালি কোচিং করেন। কেউ স্থান, কাল, পাত্র ভেদে ৩,০০০ থেকে ১৫,০০০ টাকায় ভর্তি হয়েছেন কিন্তু, সেখানে জ্যাম ঠেলে (বিশেষ করে ঢাকা শহরে) কোচিং করতে যাওয়া-আসা একটা বিরক্তিকর ও সময়ের ব্যাপার। আপনার জন্য আমাদের অনলাইন গাইডলাইন ভীষণ হেল্পফুল হবে। কেননা এটা একটা ভালো বইয়ের সমতুল্য।

২) একদল মেধাবী আইনজীবী প্রতিনিয়ত তথ্য উপাত্ত আপডেট করে থাকেন অর্থ্যাৎ আপনি নির্ভুল শিখবেন।

৩) আপনি হয়তো শিক্ষানবীশ আইনজীবী। কিন্তু কোর্টের ব্যস্ততায় পড়ার সময় সঙ্কুচিত। ফেসবুক ব্রাউজিং এর পাশাপাশি একটু নিরিবিলি সময় পেলেই ব্যস্ত হয়ে পড়তে পারেন আমাদের অনলাইনে।

৪) আপনি হয়তো চাকুরীজীবী। ফিজিক্যালি কোচিং এ ভর্তি হবার সুযোগ নেই। সময়ও কম। সে কারনে ই-লার্নিং আপনার জন্য সর্বোত্তম পন্থা।

৫) আমাদের রয়েছে দক্ষ অনলাইন কর্মী যারা আপনাকে সকাল ১০.০০ টা থেকে রাত ১০.০০ পর্যন্ত অনলাইন সেবা প্রদান করবেন।

৬) আমাদের ই-লার্নিং সেবাটি এন্ড্রয়েড মোবাইলেও ব্যবহার করা যায় সাবলীলভাবে এবং ২৪ ঘন্টাই ব্যবহার করতে পারবেন।

৭) আমরা আর্ন্তজাতিক মানের সার্ভার (ইউএসএ সার্ভার) ব্যবহার করি অর্থ্যাৎ সার্ভার ডাউন হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই।

৮) আমাদের রয়েছে আর্ন্তজাতিক মানের কমোডো এস.এস.এল সার্টিফিকেট সুতরাং আপনার কম্পিউটার বা মোবাইল থাকবে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত।

এরকম অসংখ্য কারণেই আপনি আমাদের সাথে জয়েন করতে পারেন।

ই-লার্নিং সম্পর্কে বিস্থারিত জানতে ক্লিক করুন

ই-লার্নিং সম্পর্কে বিস্থারিত জানতে ক্লিক করুন

ই-লানিং এর মাধ্যমে কি কি পাব?

  • ৩০০+ মডেল টেষ্ট (আইনগত ব্যাখ্যাসহ);
  • ৩০০০+ ইউনিক এম.সি.কিউ;
  • বিষয়ভিত্তিক মডেল টেষ্ট;
  • বিষয়ভিত্তিক ব্যাখ্যামূলক প্রশ্ন;
  • ধারাভিত্তিক ভিডিও লেকচার;
  • লিখিত পরীক্ষার জন্য বিষয়ভিত্তিক হেন্ডনোট;
  • মৌখিক পরীক্ষার জন্য সার্বিক সহযোগীতা।

আইন সংক্রান্ত ভিডিও লেকচার কিভাবে দেখব?

আমাদের YouTube চ্যানেলে প্রতিদিন নতুন নতুন ভিডিও আপলোড করা হবে। YouTube চ্যানেলে Subscribe না করলে নতুন ভিডিও লেকচারের Notifications পাবেন না। ফ্রী ভিডিও লেকচারের Notifications পেতে নিচের “সাবক্রাইব করুন” বাটনে ক্লিক করুন।

সাবসক্রাইব করুন

বিঃদ্রঃ যারা মোবাইলে ব্যবহার করবেন তারা Google Play Store এ প্রবেশ করে Legal Study লিখে সার্চ দিন। সার্চ দেওয়ার পর সার্চ রেজাল্টে Legal Study (A True Art of Learning) এর নিচে Advocate Almonsur লেখা দেখতে পাবেন। এটিই হচ্ছে আমাদের অফিসিয়াল Google Apps অথবা নিচের GET IT ON Google Play বাটনে ক্লিক বা স্পর্শ করে Apps ডাউনলোড করতে পারেন।

ফৌজদারী কার্যবিধির সংশ্লিষ্ট ধারা
(ধারা ১৫৪ থেকে ১৭৬ পর্যন্ত)
সর্তকবানীঃ যেহেতু ফৌজদারী কার্যবিধি ইংরেজী ভাষায় প্রণীত হয়েছে সেহেতু, অত্র আইন পড়ার সময় অবশ্যই ইংরেজীকে প্রাধান্য দিতে হবে। এখানে আইনের যে বাংলায় অনুবাদ দেওয়া হয়েছে তাতে ভুল-ভ্রান্তি থাকাটাই স্বাভাবিক কিন্তু, অত্র আইনের যে ইংরেজী ভার্সন দেওয়া হয়েছে তা প্রায় শতভাগ শুদ্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে।

নির্দেশনাঃ প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা, এই অংশে ফৌজদারী কার্যবিধির সংশ্লিষ্ট ধারা এবং ধারাভিত্তিক বিশ্লেষণাত্মক আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি নিবন্ধিত ফ্রী মেম্বার বা নিবন্ধিত না হয়ে থাকেন তাহলে ফৌজদারী কার্যবিধির ধারাগুলো সম্পর্কে একটি ধারণা পাবেন। শুধুমাত্র প্রিমিয়াম মেম্বারদের জন্য বিশ্লেষণাত্মক অংশটুকু ধারাগুলোর নিচে প্রদর্শিত হবে। মনে রাখা ভাল, “আইন হচ্ছে বুঝার বিষয়, মুখস্তের বিষয় নয়”।

ধারা ১৫৪। আমলযোগ্য মামলার ক্ষেত্রে সংবাদ (Information in cognizable cases): কোন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট কোন আমলযোগ্য অপরাধ সম্পর্কে মৌখিকভাবে দেয়া প্রত্যেকটি সংবাদ তিনি লিখে নিবেন অথবা তার নির্দেশক্রমে উহা লিখিত হবে, এবং সংবাদদাতাকে উহা পড়ে শুনাতে হবে, এবং লিখিতভাবে প্রদত্ত বা উপযুক্ত মতে লিখিত প্রত্যেকটি সংবাদ ইহা প্রদানকারী ব্যক্তি কর্তৃক স্বাক্ষরিত হবে, এবং উহার সারমর্ম উক্ত অফিসার কর্তৃক এই বিষয়ে সরকারের নির্দেশিত আকারে রক্ষিত একটি বহিতে লিপিবদ্ধ করতে হবে। (Every information relating to the commission of a cognizable offence if given orally to an officer in charge of a police-station, shall be reduced to writing by him or under his direction, and be read over to the informant; and every such information, whether given in writing or reduced to writing as aforesaid, shall be signed by the person giving it, and the substance thereof shall be entered in a book to be kept by such officer in such form as the Government may prescribe in this behalf.)

ধারা ১৫৫। আমল অযোগ্য মামলার ক্ষেত্রে সংবাদ (Information in non-cognizable cases):

(১) কোন থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসারের উক্ত থানার সীমার মধ্যে কোন আমল অযোগ্য মামলার অপরাধ সংঘটন সম্পর্কে সংবাদ দেওয়া হলে তিনি সংবাদের সারমর্ম উপযুক্তভাবে রক্ষিত বহিতে লিপিবদ্ধ করবেন এবং সংবাদদাতাকে ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করবেন। (When information is given to an officer in charge of a police-station of the commission within the limits of such station of a non-cognizable offence, he shall enter in a book to be kept as aforesaid the substance of such information and refer the informant to the Magistrate.)

আমলযোগ্য মামলার তদন্ত (Investigation into non-cognizable cases):

(২) অনুরূপ ঘটনার বিচার বা বিচারের জন্য সোপর্দ করার ক্ষমতাসম্পন্ন কোন প্রথম বা দ্বিতীয় শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেটের আদেশ ব্যতিত কোন পুলিশ অফিসার কোন আমলঅযোগ্য ঘটনা সম্পর্কে তদন্ত করবেন না। [No police-officer shall investigate a non-cognizable case without the order of a Magistrate of the first or second class having power to try such case or (Note-1) send the same for trial (Note-2) (***).]

(৩) এরূপ আদেশপ্রাপ্ত প্রত্যেকটি পুলিশ অফিসার তদন্তের ব্যাপারে আমলযোগ্য ঘটনার ক্ষেত্রে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার ক্ষমতার অনুরূপ ক্ষমতা বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতারের ক্ষমতা ব্যতিত প্রয়োগ করতে পারবেন। (Any police-officer receiving such order may exercise the same powers in respect of the investigation (except the power to arrest without warrant) as an officer in charge of a police-station may exercise in a cognizable case.)

Note-1: The word `send` was substituted, for the word `commit` by section 2 and Schedule of the Law Reforms Ordinance, 1978 (Ordinance No. XLIX of 1978)

Note-2: The comma, words and letter `, or of a Presidency Magistrate` were omitted by section 3 and Schedule of the Bangladesh Laws (Revision And Declaration) Act, 1973 (Act No. VIII of 1973)

ধারা ১৫৬। আমলযোগ্য মামলার তদন্ত (Investigation into cognizable cases):

(১) কোন থানার সীমার মধ্যে স্থানীয় এলাকার এখতিয়ারবান কোন আদালত তদন্ত বা বিচারের স্থান সম্পর্কিত পঞ্চদশ অধ্যায়ের বিধান অনুসারে যে ঘটনার তদন্ত বা বিচারের ক্ষমতায় ক্ষমতাবান, থানার ভারপ্রাপ্ত যে কোন অফিসার ম্যাজিষ্ট্রেটের আদেশ ছাড়াই এরূপ যে কোন আমলযোগ্য ঘটনা সম্পর্কে তদন্ত করতে পারবেন। (Any officer in charge of a police-station may, without the order of a Magistrate, investigate any cognizable case which a Court having jurisdiction over the local area within the limits of such station would have power to inquire into or try under the provisions of Chapter XV relating to the place of inquiry or trial.)

(২) এরূপ কোন ক্ষেত্রে কোন পুলিশ অফিসারের প্রসিডিং সম্পর্কে, তিনি সংশ্লিষ্ট ঘটনার ব্যাপারে এই ধারার অধীন তদন্তের ক্ষমতায় ক্ষমতাবান নহেন বলে, কোন পর্যায়ে প্রশ্ন উত্থাপন করা যাবে না। (No proceeding of a police-officer in any such case shall at any stage be called in question on the ground that the case was one which such officer was not empowered under this section to investigate.)

(৩) ১৯০ ধারার অধীন ক্ষমতাপ্রাপ্ত যে কোন ম্যাজিষ্ট্রেট উপরে উল্লিখিত তদন্তের আদেশ দিতে পারবেন। (Any Magistrate empowered under section 190 may order such and investigation as above mentioned.)

ধারা ১৫৭। আমলযোগ্য অপরাধ সম্পর্কে সন্দেহের ক্ষেত্রে পদ্ধতি (Procedure where cognizable offence suspected):

(১) কোন থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার সংবাদ পেয়ে বা অন্য কোনভাবে এরূপ কোন অপরাধ সংঘটন সম্পর্কে যুক্তিসংগতভাবে সন্দেহ পোষণ করেন যে, অপরাধ সম্পর্কে তদন্ত করতে তিনি ১৫৬ ধারা অনুসারে ক্ষমতাবান, তাহলে তিনি সংগে সংগে এরূপ একজন ম্যাজিষ্ট্রেটকে জানাবেন, যিনি পুলিশ রিপোর্টের ভিত্তিতে উক্ত অপরাধ আমলে নিতে ক্ষমতাবান এবং ঘটনার কাহিনী ও পরিস্থিতি সম্পর্কে তদন্ত করার জন্য এবং প্রয়োজন হলে অপরাধীকে খুঁজে বের করে ও গ্রেফতার করার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্দেশ্যে ব্যক্তিগতভাবে নিজে ঘটনাস্থল অভিমুখে রওনা হবেন অথবা তার কোন অধস্তন অফিসারকে যিনি সরকার কর্তৃক এ সম্পর্কে সাধারণ বা বিশেষ আদেশ দ্বারা নির্ধারিত পদ অপেক্ষা নিম্ন পদস্থ নন, দায়িত্ব দিবেনঃ (If, from information received or otherwise, an officer in charge of a police-station has reason to suspect the commission of an offence which he is empowered under section 156 to investigate, he shall forthwith send a report of the same to a Magistrate empowered to take cognizance of such offence upon a police-report, and shall proceed in person, or shall depute one of his subordinate officers not being below such rank as the Government may, by general or special order, prescribe in this behalf to proceed, to the spot, to investigate the facts and circumstances of the case, and, if necessary, to take measures for the discovery and arrest of the offender:)

যেক্ষেত্রে সরেজমিনে তদন্তের প্রয়োজন নাই (Where local investigation dispensed with):

তবে শর্ত এই যেঃ- (Provided as follows:-)

ক) এরূপ কোন অপরাধ সংঘটন সম্পর্কিত কোন সংবাদ যখন কোন ব্যক্তির বিরুদ্ধে তার নাম উল্লেখ করে দেয়া হয়, এবং ঘটনাটি যখন গুরুতর প্রকৃতির না হয় তখন ঘটনাস্থলে যেয়ে তদন্তের জন্য থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসারের ব্যক্তিগতভাবে রওয়ানা হওয়ার অথবা অধস্তন কোন অফিসারকে দায়িত্ব দেওয়ার প্রয়োজন নাই; (when any information as to the commission of any such offence is given against any person by name and the case is not of a serious nature, the officer in charge of a police-station need not proceed in person or depute a subordinate officer to make an investigation on the spot;)

যেক্ষেত্রে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ অফিসার তদন্তের পর্যাপ্ত কারণ দেখেন না (Where police-officer in charge sees no sufficient ground for investigation):

খ) থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসারের নিকট যদি প্রতীয়মান হয় যে, তদন্ত শুরু করার মত পর্যাপ্ত কারণ নাই তাহলে তিনি ঘটনাটি সম্পর্কে তদন্ত করবেন না। (if it appears to the officer in charge of a police-station that there is no sufficient ground for entering on an investigation, he shall not investigate the case.)

(২) উপধারার (১) ব্যতিক্রমে (ক) ও (খ) অনুচ্ছেদে বর্ণিত প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার তার রিপোর্টে উক্ত উপধারানুসারে সম্পূর্ণভাবে কাজ না করার কারণ উল্লেখ করবেন, এবং (গ) অনুচ্ছেদে বর্ণিত ঘটনার ক্ষেত্রে তিনি সংগে সংগে সংবাদদাতাকে, যদি থাকে, সরকার কর্তৃক নির্ধারিত পদ্ধতিতে জানাবেন যে, তিনি ঘটনা সম্পর্কে তদন্ত করবেন না বা তদন্ত করাবেন না। (In each of the cases mentioned in clauses (a) and (b) of the proviso to sub-section (1), the officer in charge of the police-station shall state in his said report his reasons for not fully complying with the requirements of that sub-section, and, in the case mentioned in clause (b), such officer shall also forthwith notify to the informant, if any, in such manner as may be prescribed by the Government, the fact that he will not investigate the case or cause it to be investigated.)

ধারা ১৫৮। ১৫৭ ধারার রিপোর্ট কিভাবে দাখিল করতে হয় (Reports under section 157 how submitted)

(১) সরকার আদেশ দিলে ১৫৭ ধারানুসারে ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরিত প্রত্যেকটি রিপোর্ট সরকার কর্তৃক সাধারণ বা বিশেষ আদেশ দ্বারা এই সম্পর্কে নিযুক্ত উর্ধতন পুলিশ অফিসারের মারফত পেশ করতে হবে। (Every report sent to a Magistrate under section 157 shall, if the Government so directs, be submitted through such superior officer of police as the Government, by general or special order, appoints in that behalf.)

(২) এরূপ উর্ধতন অফিসার যেরূপ উপযুক্ত বলে মনে করেন, থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসাররা সেরূপ নির্দেশ দিবেন এবং এরূপ নির্দেশ উক্ত রিপোটে লিপিবদ্ধ করে বিলম্ব ছাড়াই উহা ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করবেন। (Such superior officer may give such instructions to the officer in charge of the police-station as he thinks fit, and shall, after recording such instructions on such report, transmit the same without delay to the Magistrate.)

ধারা ১৫৯। তদন্ত বা প্রাথমিক অনুসন্ধানের ক্ষমতা (Power to hold investigation or preliminary inquiry): এরূপ রিপোর্ট পাওয়ার পর ম্যাজিষ্ট্রেট ঘটনা সম্পর্কে তদন্তের নির্দেশ দিতে পারবেন, অথবা তিনি উপযুক্ত মনে করলে ঘটনা সম্পর্কে প্রাথমিক তদন্ত পরিচালনা বা এই কার্যবিধিতে বর্ণিত পদ্ধতিতে উহ্য অন্যভাবে নিষ্পত্তি করার উদ্দেশ্যে তাৎক্ষণিকভাবে অগ্রসর হবেন অথবা তার অধস্তন কোন ম্যাজিষ্ট্রেটের উপর অগ্রসর হবার দায়িত্ব অর্পণ করবেন। (Such Magistrate, on receiving such report, may direct an investigation or, if he thinks fit, at once proceed, or depute any Magistrate subordinate to him to proceed, to hold a preliminary inquiry into, or otherwise to dispose of, the case in manner provided in this Code.)

ধারা ১৬০। পুলিশ অফিসারের সাক্ষী তলবের ক্ষমতা (Police-officer’s power to require attendance of witnesses): প্রদত্ত সংবাদ হতে কিংবা অন্য কোনভাবে যে ব্যক্তি সবিশেষ ঘটনা জানেন বলে প্রতীয়মান হয়, এই অধ্যায়ের অধীন তদন্ত পরিচালনাকারী কোন পুলিশ অফিসারের লিখিত আদেশ দ্বারা তার নিজের থানার বা পার্শ্ববর্তী থানার এরূপ কেন ব্যক্তিকে তার সম্মুখে হাজির হতে বলতে পারেন এবং এরূপ ব্যক্তি সেই মোতাবেক হাজির হবেন। (Any police-officer making an investigation under this Chapter may, by order in writing, require the attendance before himself of any person being within the limits of his own or any adjoining station who, from the information given or otherwise, appears to be acquainted with the circumstances of the case; and such person shall attend as so required.)

ধারা ১৬১। পুলিশ কর্তৃক সাক্ষীদের পরীক্ষাকরণ (Examination of witnesses by police):

(১) এই অধ্যায়ের অধীন তদন্ত পরিচালনাকারী কোন পুলিশ অফিসার অথবা তার চাহিদা মোতাবেক কাজ করছে সরকারের সাধারণ বা বিশেষ আদেশ দ্বারা এই সম্পর্কে নির্ধারিত অপেক্ষা নিম্ন পদের নহেন এরূপ কোন পুলিশ অফিসার ঘটনা ও ইহার অবস্থা জানেন বলে অনুমিত ব্যক্তিকে মৌখিকভাবে পরীক্ষা করতে পারবেন। (Any police-officer making an investigation under this Chapter or any police-officer not below such rank as the Government may, by general or special order, prescribe in this behalf, acting on the requisition of such officer may examine orally any person supposed to be acquainted with the facts and circumstances of the case.)

(২) যে সকল প্রশ্নের জবাব তাকে ফৌজদারী অভিযোগে দণ্ড বা বাজেয়াপ্তির দিকে টেনে নিতে পারে সেই সকল প্রশ্নের উত্তর প্রদান ছাড়া এরূপ ব্যক্তি সংশ্লিষ্ট ঘটনা সম্পর্কে উক্ত অফিসারের সকল প্রশ্নের জবাব দিতে বাধ্য থাকবেন। (Such person shall be bound to answer all questions relating to such case put to him by such officer, other than questions the answers to which would have a tendency to expose him to a criminal charge or to a penalty or forfeiture.)

(৩) এই ধারার অধীন পরীক্ষাকালে পুলিশ অফিসার তার নিকট প্রদত্ত বিবৃতি লিখে নিবেন, এবং তিনি যদি এরূপ করেন তাহলে যে সকল ব্যক্তির বিবৃতি লিপিবদ্ধ করেন, তাদের প্রত্যেকের বিবৃতির পৃথক রেকর্ড প্রণয়ন করবেন। (The police-officer may reduce into writing any statement made to him in the course of an examination under this section, and if he does so he shall make a separate record of the statement, of each such person whose statement he records.)

ধারা ১৬২। পুলিশের নিকট প্রদত্ত বিবৃতিতে স্বাক্ষর করতে হবে না; সাক্ষ্যে এরূপ বিবৃতির ব্যবহার (Statements to police not to be signed; use of such statements in evidence):

(১) এই অধ্যায়ের অধীন পরিচালিত তদন্তের সময় কোন ব্যক্তি কোন পুলিশ অফিসারের নিকট কোন বিবৃতি দিলে তা যদি লিপিবদ্ধকৃত হয়, তাহলে বিবৃতিদাতা উহাতে স্বাক্ষর করবেন না; অথবা পুলিশ ডায়েরীতে থাকুক বা অন্যভাবে থাকুক এরূপ কোন বিবৃতি বা রেকর্ড অথবা এরূপ বিবৃতি বা রেকর্ডের অংশ যে অপরাধের তদন্তের সময় এই বিবৃতি দেয়া হয়েছিল, সেই অপরাধের কোন অনুসন্ধান বা বিচারে কোন উদ্দেশ্যেই (অতঃপর বর্ণিত ক্ষেত্র ব্যতিত) ব্যবহার করা যাবে নাঃ (No statement made by any person to a police-officer in the course of an investigation under this Chapter shall, if reduced into writing, be signed by the person making it; nor shall any such statement or any record thereof, whether in a police-diary or otherwise, or any part of such statement or record, be used for any purpose (save as hereinafter provided) at any inquiry or trial in respect of any offence under investigation at the time when such statement was made:)

তবে শর্ত এই যে, যে ব্যক্তির বিবৃতি উক্তরূপে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে, তাকে উক্ত অনুসন্ধান বা বিচারে সরকার পক্ষের সাক্ষী হিসাবে তলব করা হলে আসামীর অনুরোধক্রমে আদালত উক্ত লিখিত বিবৃতির উল্লেখ করবেন এবং এরূপ বিবৃতি কোন অংশ যথাযথভাবে প্রমাণিত হলে উহা যাতে ১৮৭২ সালের সাক্ষ্য আইনের ১৪৮ ধারায় বর্ণিত পদ্ধতি অনুসারে উক্ত সাক্ষীর সাক্ষ্য অস্বীকার করার জন্য ব্যবহৃত হতে পারে সেজন্য উহার একটি নকল আসামীকে প্রদানের নির্দেশ দিতে পারবেন। এরূপ বিবৃতির কোন অংশ উক্ত রূপে ব্যবহৃত হলে উহার কোন অংশ উক্ত সাক্ষীর পুনঃপরীক্ষার ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হতে পারে। তবে কেবলমাত্র তার জেরায় উল্লিখিত কোন বিষয়ের ব্যাখ্যার জন্যই এই ব্যবহার করা যেতে পারেঃ (Provided that, when any witness is called for the prosecution in such inquiry or trial whose statement has been reduced into writing as aforesaid, the Court shall on the request of the accused, refer to such writing and direct that the accused be furnished with a copy thereof, in order that any part of such statement, if duly proved, may be used to contradict such witness in the manner provided by section 145 of the Evidence Act, 1872. When any part of such statement is so used, any part thereof may also be used in the re-examination of such witness, but for the purpose only of explaining any matter referred to in his cross-examination:)

আরও শর্ত এই যে, আদালত যদি মনে করেন যে, উক্ত বিবৃতির কোন অংশ অনুসন্ধান বা বিচারের বিষয়বস্তুর সাথে প্রাসঙ্গিক নয়, অথবা ন্যায় বিচারের স্বার্থে আসামীর নিকট উহ্য প্রকাশ করা অত্যাবশ্যক নয় এবং উহা জনস্বার্থে যুক্তিযুক্ত নয়, তাহলে আদালত এরূপ অভিমত (কিন্তু ইহার কারণ নয়) লিপিবদ্ধ করবেন এবং আসামীকে প্রদত্ত বিবৃতির নকল হতে উক্ত অংশ বাদ দিয়ে দিবেন। (Provided, further that, if the Court is of opinion that any part of any such statement is not relevant to the subject-matter of the inquiry or trial or that its disclosure to the accused is not essential in the interests of justice and is inexpedient in the public interests, it shall record such opinion (but not the reasons therefor) and shall exclude such part from the copy of the statement furnished to the accused.)

(২) ১৮৭২ সালের সাক্ষ্য আইনের ৩২ ধারার (৪) অনুচ্ছেদের বিধানে বর্ণিত বিবৃতির ক্ষেত্রে এই ধারার কোন কিছুই প্রযোজ্য নয় বলে অথবা উক্ত আইনের ২৭ ধারার বিধানের প্রভাব ফেলবেন বলে মনে করতে হবে। (Nothing in this section shall be deemed to apply to any statement falling within the provisions of section 32, clause (1), of the Evidence Act, 1872 or to affect the provisions of section 27 of that Act.)

ধারা ১৬৩। প্রলোভনের প্রস্তাব দেওয়া যাবে না (No inducement to be offered):

(১) কোন পুলিশ অফিসার অথবা অন্য কোন কর্তৃত্ব সম্পন্ন ব্যক্তি ১৮৭২ সালের সাক্ষ্য আইনের ২৪ ধারায় বর্ণিত কোন প্রলোভন, হুমকি বা প্রতিশ্রুতি দিবেন না বা দেওয়া যাবে না। (No police-officer or other person in authority shall offer or make, or cause to be offered or made, any such inducement, threat or promise as is mentioned in the Evidence Act, 1872, section 24.)

(২) এই অধ্যায়ের অধীন তদন্ত চলাকালে কোন ব্যক্তি স্বেচ্ছায় কোন বিবৃতি দিতে চাইলে কোন পুলিশ অফিসার বা অন্য ব্যক্তি সর্তকতার দ্বারা বা অন্য কোন উপায়ে তাকে নিবারণ করবেন না। (But no police-officer or other person shall prevent, by any caution or otherwise, any person from making in the course of any investigation under this Chapter any statement which he may be disposed to make of his own free will.)

ধারা ১৬৪। বিবৃতি এবং দোষস্বীকারোক্তি লিপিবদ্ধকরণের ক্ষমতা (Power to record statements and confessions):

(১) কোন মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট, কোন প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিষ্ট্রেট এবং এই বিষয়ে সরকার কর্তৃক বিশেষভাবে ক্ষমতাপ্রাপ্ত দ্বিতীয় শ্রেণীর ম্যাজিষ্ট্রেট, তিনি যদি পুলিশ অফিসার না হন, তাহলে তিনি এই অধ্যায়ের অধীন কোন তদন্তের সময় বা পরবর্তী পর্যায়ে অনুসন্ধান বা বিচার শুরু হবার পূর্বে যে কোন সময় তার নিকট প্রদত্ত কোন বিবৃতি বা দোষস্বীকারোক্তি লিপিবদ্ধ করতে পারবেন। [(Note-1) Any Metropolitan Magistrate, any Magistrate of the first class and any Magistrate of the second class specially empowered in this behalf by the Government may, if he is not a police-officer record any statement or confession made to him in the course of an investigation under this Chapter or at any time afterwards before the commencement of the inquiry or trial.]

(২) সাক্ষ্য লিপিবদ্ধ করার জন্য অতঃপর যে সকল পদ্ধতি নির্ধারণ করা হয়েছে তাদের মধ্যে যে পদ্ধতিকে তিনি ঘটনার অবস্থায় উপযুক্ত বলে মনে করেন, সেই পদ্ধতিতে তিনি বিবৃতি লিপিবদ্ধ করবেন। এরূপ দোষস্বীকারোক্তি ৩৬৪ ধারায় বর্ণিত পদ্ধতিতে লিপিবদ্ধ ও স্বাক্ষরিত হবে এবং অতঃপর যে ম্যাজিষ্ট্রেট ঘটনা সম্পর্কে অনুসন্ধান বা বিচার করবেন, এরূপে লিপিবদ্ধ বিবৃতি বা দোষস্বীকারোক্তি তার নিকট প্রেরণ করতে হবে। (Such statements shall be recorded in such of the manners hereinafter prescribed for recording evidence as is, in his opinion best fitted for the circumstances of the case. Such confessions shall be recorded and signed in the manner provided in section 364, and such statements or confessions shall then be forwarded to the Magistrate by whom the case is to be inquired into or tried.)

(৩) এরূপ দোষস্বীকারোক্তি লিপিবদ্ধ করার পূর্বে ম্যাজিষ্ট্রেট স্বীকারকারীকে বুঝিয়ে দিবেন যে, তিনি স্বীকারোক্তি করতে বাধ্য নন এবং তিনি যদি উহা করেন, তাহলে তার বিরুদ্ধে উহা সাক্ষ্য হিসাবে ব্যবহৃত হতে পারে, এবং স্বীকারোক্তিকারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে উহা স্বেচ্ছামূলকভাবে করা হচ্ছে বলে যুক্তিসংগতভাবে বিশ্বাস না করা পর্যন্ত কোন ম্যাজিষ্ট্রেট কোন দোষস্বীকারোক্তি লিপিবদ্ধ করবেন না; এবং যখন তিনি কোন দোষস্বীকারোক্তি লিপিবদ্ধ করবেন, তখন উক্ত লিপির পাদদেশে একটি স্বারক মন্তব্য লিপিবদ্ধ করবেনঃ- (A Magistrate shall, before recording any such confession, explain to the person making it that he is not bound to make a confession and that if he does so it may be used as evidence against him and no Magistrate shall record any such confession unless, upon questioning the person making it, he has reason to believe that it was made voluntarily; and, when he records any confession, he shall make a memorandum at the foot of such record to the following effect:-)

“আমি (নাম) কে বুঝায়ে দিয়াছিল যে, তিনি দোষস্বীকার করতে বাধ্য নন এবং যদি তিনি উহা করেন, তাহলে দোষস্বীকারোক্তি তার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য হিসাবে ব্যবহৃত হতে পারে এবং আমি বিশ্বাস করি যে, দোষস্বীকারোক্তি স্বেচ্ছাপ্রণোদিতভাবে করা হয়েছে। ইহা আমার উপস্থিতিতে ও শ্রবণে করা হয়েছে এবং স্বীকারোক্তিকারীকে ইহা পড়ে শুনানো হয়েছে এবং তিনি ইহা নির্ভুল বলে স্বীকার করেছেন এবং তিনি যে বিবৃতি দিয়াছেন, এতে তার পূর্ণাঙ্গ ও সত্য বিবরণ রয়েছে।” [“I have explained to (name) that he is not bound to make a confession and that, if he does so, any confession he may make may be used as evidence against him and I believe that this confession was voluntarily made. It was taken in my presence and hearing, and was read over to the person making it and admitted by him to be correct, and it contains a full and true account of the statement made by him.]

(স্বাক্ষর) ক, খ [(Signed) A. B]

ম্যাজিষ্ট্রেট। (Magistrate.)

ব্যাখ্যা (Explanation): যে ম্যাজিষ্ট্রেট দোষ স্বীকারোক্তি বা বিবৃতি গ্রহণ বা লিপিবদ্ধ করেন, তার সংশ্লিষ্ট মামলার এখতিয়ার থাকার প্রয়োজন নাই। (It is not necessary that the Magistrate receiving and recording a confession or statement should be a Magistrate having jurisdiction in the case.)

Note-1: The words and comma `Any Metropolitan Magistrate, any Magistrate of the first class` were substituted, for the comma and words`, any Magistrate of the first class` by section 2 and Schedule of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Ordinance, 1976 (Ordinance No. LXXXVI of 1976)

ধারা ১৬৫। পুলিশ অফিসার কর্তৃক তল্লাশী (Search by police-officer):

(১) যখন কোন থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার বা কোন পুলিশ অফিসার তদন্তের সময় যুক্তিসংগতভাবে বিশ্বাস করেন যে, যে অপরাধ সম্পর্কে তদন্তের জন্য তিনি ক্ষমতাপ্রাপ্ত হয়েছেন, সেই অপরাধের তদন্তের জন্য প্রয়োজনীয় কোন জিনিস, তিনি যে থানার ভারপ্রাপ্ত অথবা তিনি যে থানার সাথে সংযুক্ত সেই থানার কোন স্থানে পাওয়া যাবে এবং তার মতে অহেতুক বিলম্ব ব্যতিত অন্য কোনভাবে উক্ত জিনিস সংগ্রহ করা যাবে না। তখন উক্ত অফিসার তার উক্তরূপ বিশ্বাসের যে কোন স্থানে জিনিসের জন্য তল্লাশী করবেন বা তল্লাশী করাবেন। (Whenever an officer in charge of a police-station or a police-officer making an investigation has reasonable grounds for believing that anything necessary for the purposes of an investigation into any offence which he is authorized to investigate may be found in any place within the limits of the police-station of which he is in charge, or to which he is attached, and that such thing cannot in his opinion be otherwise obtained without undue delay, such officer may, after recording in writing the grounds of his belief and specifying in such writing, so far as possible, the thing for which search is to be made, search, or cause search to be made, for such thing in any place within the limits of such station:)

তবে শর্ত এই যে, এরূপ কোন অফিসার Banker’s Books Evidence Act. 1897 (XVII of1897) এর সংজ্ঞা অনুযায়ী কোন ব্যাংকের বা ব্যাংকারের হেফাজতে রক্ষিত কোন জিনিস এবং কোন ব্যক্তির ব্যাংকের হিসাব সম্পর্কিত কোন তথ্য প্রদান করতে পারে এরূপ নিম্নলিখিত ক্ষেত্র ছাড়া তল্লাশী করবেন না বা করাবেন না- (Provided that no such officer shall search, or cause search to be made, for anything which is in the custody of a bank or banker as defined in the Bankers’ Books Evidence Act, 1891 (XVIII of 1891), and relates, or might disclose any information which relates, to the bank account of any person except,-)

ক) দায়রা জজের লিখিত পূর্বানুমতি নিয়ে দণ্ডবিধির ৪০৩, ৪০৬, ৪০৮ এবং ৪০৯ ধারা এবং ৪২১ হতে ৪২৪ ধারা (উভয়ই অন্তর্ভুক্ত) এবং ৪৬৫ ধারা হতে ৪৭৭(ক) ধারা (উভয়ই অন্তর্ভুক্ত) অনুযায়ী কোন অপরাধের তদন্তের জন্য; এবং (for the purpose of investigating an offence under sections 403, 406, 408 and 409 and section 421 to 424 both inclusive and sections 465 to 477A (both inclusive) of the Penal Code with the prior permission in writing of a Sessions Judge; and)

খ) অন্যান্য ক্ষেত্রে হাইকোর্ট বিভাগের লিখিত পূর্বানুমতি নিয়ে; (in other cases, with the prior permission in writing of the High Court Division;)

(২) কোন পুলিশ অফিসার (১) উপধারা অনুসারে অগ্রসর হবার সময় সম্ভব হলে নিজে তল্লাশী পরিচালনা করবেন; (A police-officer proceeding under sub-section (1) shall, if practicable, conduct the search in person.)

(৩) তিনি যদি নিজে তল্লাশী পরিচালনা করতে অসমর্থ হন এবং তল্লাশী পরিচালনার জন্য উপযুক্ত অন্য কোন ব্যক্তি যদি সে সময় উপস্থিত না থাকেন তাহলে তিনি তার কারণ লিপিবদ্ধ করে তার অধস্তন কোন অফিসারকে তল্লাশী করতে বলবেন এবং তল্লাশীর স্থান ও যথাসম্ভব তল্লাশীর জিনিসের বিষয় উল্লেখ করে উক্ত অধস্তন অফিসারকে একটি লিখিত আদেশ অর্পণ করবেন; এবং অতঃপর অধস্তন অফিসার উক্ত জিনিষের জন্য উক্ত স্থান তল্লাশী করতে পারবেন। (If he is unable to conduct the search in person, and there is no other person competent to make the search present at the time, he may after recording in writing his reasons for so doing require any officer subordinate to him to make the search, and he shall deliver to such subordinate officer an order in writing specifying the place to be searched and, so far as possible, the thing for which search is to be made; and such subordinate officer may thereupon search for such thing in such place.)

(৪) তল্লাশী পরোয়ানা সম্পর্কে এই কার্যবিধির বিধানসমূহ এবং ১০২ ও ১০৩ ধারায় বর্ণিত তল্লাশী সম্পর্কিত সাধারণ বিধানসমূহ যথাসম্ভব এই ধারানুসারে পরিচালিত তল্লাশীর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। (The provisions of this Code as to search-warrants and the general provisions as to searches contained in section 102 and section 103 shall, so far as may be, apply to a search made under this section.)

(৫) উপধারা (১) বা (৩) এর অধীন প্রণীত কোন রেকর্ডের নকল সঙ্গে সঙ্গে উক্ত অপরাধ আমলে আনার ক্ষমতাবান নিকটতম ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করতে হবে এবং তল্লাশীকৃত স্থানের মালিক বা দখলকার আবেদন করলে উক্ত ম্যাজিষ্ট্রেট তাকে একটি নকল প্রদান করবেন। (Copies of any record made under sub-section (1) or sub-section (3) shall forthwith be sent to the nearest Magistrate empowered to take cognizance of the offence and the owner or occupier of the place searched shall on application be furnished with a copy of the same by the Magistrate.)

তবে শর্ত এই যে, ম্যাজিষ্ট্রেট কোন উপযুক্ত বিশেষ কারণবশতঃ বিনামূল্যে উহা সরবরাহ না করলে তাকে উহার জন্য মূল্য দিতে হবে। (Provided that he shall pay for the same unless the Magistrate for some special reason thinks fit to furnish it free of cost.)

ধারা ১৬৬। তল্লাশী পরোয়ানা ইস্যু করতে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কখন অন্যের প্রয়োজন হবে (When officer-in-charge of police station may require another to issue search-warrant):

(১) কোন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অথবা সাব-ইনসপেক্টর পদের নিম্ন পর্যায়ের নন এরূপ কোন তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা তার নিজের থানার সীমার মধ্যে যেরূপ তল্লাশী করতে পারবেন সেরূপ একই বা ভিন্ন কোন জেলার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দ্বারা যে কোন স্থান তল্লাশী করাতে পারবেন। (An officer in charge of a police-station or a police-officer not being below the rank of sub-inspector making an investigation may require an officer in charge of another police-station, whether in the same or a different district, to cause a search to be made in any place, in any case in which the former officer might cause such search to be made, within the limits of his own station.)

(২) এভাবে অনুরোধ প্রাপ্ত অফিসার ১৬৫ ধারার বিধানুসারে অগ্রসর হবেন এবং কোন জিনিস পাওয়া গেলে তা অনুরোধকারী কর্মকর্তার নিকট প্রেরণ করবেন। (Such officer, on being so required, shall proceed according to the provisions of section 165, and shall forward the thing found, if any, to the officer at whose request the search was made.)

(৩) যখন এরূপ বিশ্বাস করার কারণ থাকে যে, (১) উপ-ধারার অধীন অন্য কোন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দ্বারা তল্লাশী করাতে গেলে যে বিলম্ব ঘটবে তার ফলে কোন অপরাধ সংঘটনের সাক্ষ্য গোপন করা বা ধ্বংস করা হতে পারে তাহলে তখন কোন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অথবা এই অধ্যায়ের অধীন তদন্তকারী কোন পুলিশ কর্মকর্তার পক্ষে ১৬৫ ধারার অধীন অন্য কোন থানার সীমানার মধ্যে অবস্থিত কোন স্থান তার নিজের থানার সীমানার মধ্যেকার কোন স্থানের ন্যায় গণ্য করে তল্লাশী করা আইনসংগত হবে। [Whenever there is reason to believe that the delay occasioned by requiring an officer in charge of another police-station to cause a search to be made under sub-section (1) might result in evidence of the commission of an offence being concealed or destroyed, it shall be lawful for an officer in charge of a police-station or a police-officer making an investigation under this Chapter to search, or cause to be searched, any place in the limits of another police-station, in accordance with the provisions of section 165, as if such place were within the limits of his own station.]

(৪) উপধারা (৩) এর অধীন তল্লাশী পরিচালনাকারী কর্মকর্তা তল্লাশীকৃত স্থান যে থানার সীমানার মধ্যে অবস্থিত সেই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট সঙ্গে সঙ্গে তল্লাশীর নোটিশ পাঠাবেন এবং নোটিশের সাথে ১৯৩ ধারার প্রণীত তালিকার (যদি থাকে) একটি নকল পাঠাবেন এবং অপরাধটি আমলে আনার ক্ষমতা সম্পন্ন নিকটতম ম্যাজিষ্ট্রের নিকট ১৬৫ ধারার (১) ও (৩) উপধারায় উল্লিখিত রেকর্ড প্রেরণ করবেন। [Any officer conducting a search under sub-section (3) shall forthwith send notice of the search to the officer in charge of the police-station within the limits of which such place is situate, and shall also send with such notice a copy of the list (if any) prepared under section 103, and shall also send to the nearest Magistrate empowered to take cognizance of the offence, copies of the records referred to in section 165, sub-sections (1) and (3).]

(৫) তল্লাশীকৃত স্থানের মালিক বা দখলকার আবেদন করলে তাকে উপধারা (৪) অনুসারে ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরিত দলিলের নকল দিতে হবে। [The owner or occupier of the place searched shall, on application, be furnished with a copy of any record sent to the Magistrate under sub-section (4).]

তবে শর্ত এই যে, ম্যাজিষ্ট্রেট কোন উপযুক্ত বিশেষ কারণবশতঃ বিনামূল্যে উহা সরবরাহ না করলে তাকে উহার মূল্য দিতে হবে। (Provided that he shall pay for the same unless the Magistrate for some special reason thinks fit to furnish it free of cost.)

ধারা ১৬৭। চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে তদন্ত সম্পন্ন করা না গেলে তখনকার পদ্ধতি (Procedure when investigation cannot be completed in twenty-four hours):

(১) যখন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে হেফাজতে আটক রাখা হয় এবং ইহা প্রতীয়মান হয় যে, ৬১ ধারায় নির্ধারিত ২৪ ঘন্টা সময়ের মধ্যে তদন্ত সমাপ্ত করা যাবে না এবং এরূপ বিশ্বাস করার কারণ রয়েছে যে, অভিযোগ বা সংবাদ দৃঢ় ভিত্তিক, তখন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অথবা তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা তিনি যদি সাব-ইনসপেকটর পদের নিম্ন পর্যায়ের না হন তাহলে সঙ্গে সঙ্গে অতঃপর নির্ধারিত ডায়েরীতে লিখিত ঘটনা সম্পকিত নকল নিকটবতী ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করবেন, এবং একই সময়ে আসামীকে উক্ত ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করবেন। [Whenever any person is arrested and detained in custody, and it appears that the investigation cannot be completed within the period of twenty-four hours fixed by section 61, and there are grounds for believing that the accusation or information is well-founded, the officer in charge of the police-station or the police-officer making the investigation if he is not below the rank of sub-inspector shall forthwith transmit to the (Note-1) nearest Judicial Magistrate] a copy of the entries in the diary hereinafter prescribed relating to the case, and shall at the same time forward the accused to such Magistrate.]

(২) এই ধারার অধীন আসামীকে যে ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করা হয়, সংশ্লিষ্ট মামলার বিচার করার এখতিয়ার থাকুক বা না থাকুক, তিনি উপযুক্ত মনে করলে আসামীকে হেফাজতে আটক রাখার জন্য সময়ে সময়ে ক্ষমতা প্রদান করবেন, তবে এরূপ আইনের মেয়াদ সর্বসাকুল্যে পনের দিনের অধিক হবে না। তার যদি মামলাটি বিচার করার বা বিচারের জন্য পাঠাবার এখতিয়ার না থাকে এবং তিনি যদি আরও আটক রাখা অপ্রয়োজনীয় মনে করেন তাহলে তিনি আসামীকে এরূপ এখতিয়ারবান ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণের আদেশ দিতে পারবেন; [The Magistrate to whom an accused person is forwarded under this section may, whether he has or has not jurisdiction to try the case from time to time authorize the detention of the accused in such custody as such Magistrate thinks fit, for a term not exceeding fifteen days in the whole. If he has not jurisdiction to try the case or (Note-2) send it for trial, and considers further detention unnecessary, he may order the accused to be forwarded to a Magistrate having such jurisdiction:]

তবে শর্ত এই যে, তৃতীয় শ্রেণীর কোন ম্যাজিষ্ট্রেট এবং সরকার কর্তৃক বিশেষভাবে ক্ষমতাপ্রাপ্ত নন এরূপ কোন দ্বিতীয় শ্রেণীর ম্যাজিষ্ট্রেট আসামীকে পুলিশ হেফাজতে আটক রাখার আদেশ দিবেন না। (Provided that no Magistrate of the third class, and no Magistrate of the second class not specially empowered in this behalf by the Government shall authorize detention in the custody of the police.)

(৩) এই ধারার অধীন আসামীকে পুলিশহেফাজতে আটক রাখার ক্ষমতাদানকারী ম্যাজিষ্ট্রেট তার এরূপ করার কারণ লিপিবদ্ধ করবেন। (A Magistrate authorizing under this section detention in the custody of the police shall record his reasons for so doing.)

(৪) চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট, জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট বা মহকুমা ম্যাজিষ্ট্রেট ব্যতিত অন্য কোন ম্যাজিষ্ট্রেট এরূপ আদেশ দিলে তিনি আদেশ দেওয়ার কারণসহ আদেশের একটি নকল ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করবেন, তিনি যার অব্যবহিত অধস্তন। (Note-3) (4) If such order is given by a Magistrate other than the Chief Metropolitan Magistrate or the Chief Judicial Magistrate, he shall forward a copy of his order, with his reasons for making it to the Chief Metropolitan Magistrate or to the Chief Judicial Magistrate to whom he is subordinate.]

(৪ক) [(Note-4) (4A) If such order is given by a Chief Metropolitan Magistrate or a Chief Judicial Magistrate, he shall forward a copy of his order, with reasons for making it to the Chief Metropolitan Sessions Judge or to the Sessions Judge to whom he is subordinate.]

(৫) অপরাধ সংঘটন সম্পর্কিত সংবাদ প্রাপ্তির তারিখ অথবা এরূপ তদন্তের জন্য ম্যাজিষ্ট্রেটের আদেশ প্রাপ্তির তারিখ হতে একশত বিশ দিনের মধ্যে যদি তদন্ত সমাপ্ত না হয় তাহলে- [(Note-5) (5) If the investigation is not concluded within one hundred and twenty days from the date of receipt of the information relating to the commission of the offence or the order of the Magistrate for such investigation-]

ক) অপরাধটি আমলে নিতে ক্ষমতাসম্পন্ন বা তদন্তের আদেশদানকারী ম্যাজিষ্ট্রেট, তদন্ত সম্পর্কিত অপরাধটি যদি মৃত্যুদণ্ডে যাবজীবন কারাদণ্ডে বা দশ বৎসরের অধিক মেয়াদের কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় অপরাধ না হয় তবে তার সম্ভষ্টি সাপেক্ষে আসামীকে জামিনে মুক্তি দিতে পারবেন; এবং (the Magistrate empowered to take cognizance of such offence or making the order for investigation may, if the offence to which the investigation relates is not punishable with death, imprisonment for life or imprisonment exceeding ten years, release the accused on bail to the satisfaction of such Magistrate; and)

খ) তদন্ত সম্পর্কিত অপরাধটি যদি মৃত্যুদণ্ডে, যাবজীবন কারাদণ্ডে বা দশ বৎসরের অধিকা মেয়াদের কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় অপরাধ না হয় তবে দায়রা আদালত ইহার সম্ভষ্টি সাপেক্ষে আসামীকে জামিনে মুক্তি দিতে পারবেন; (the Court of Session may, if the offence to which the investigation relates is punishable with death, imprisonment for life or imprisonment exceeding ten years, release the accused on bail to the satisfaction of such Court:)

তবে শর্ত এই যে, আসামীকে যদি এই উপধারার অধীন জামিনে মুক্তি দেয়া না হয় তাহলে ম্যাজিষ্ট্রেট অথবা ক্ষেত্র বিশেষে দায়রা আদালত ইহার কারণ লিপিবদ্ধ করবেনঃ (Provided that if an accused is not released on bail under this sub-section, the Magistrate or, as the case may be, the Court of Session shall record the reasons for it:)

আরও শর্ত এই যে, যেক্ষেত্রে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে বিচারে সোপর্দ করার জন্য সংশ্লিষ্ট আইনের বিধান অনুযায়ী উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের অনুমোদন গ্রহণ করা প্রয়োজন, সেক্ষেত্রে অনুমোদন গ্রহণ করতে যে সময় লাগবে এই উপধারায় নির্ধারিত সময় হতে তা বাদ দিতে হবে। (Provided further that in cases in which sanction of appropriate authority is required to be obtained under the provisions of the relevant law for prosecution of the accused, the time taken for obtaining such sanction shall be excluded from the period specified in this sub-section.)

ব্যাখ্যা (Explanation): উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের বিবেচনার জন্য প্রয়োজনীয় দলিলপত্রসহ মামলাটি যে দিন তার নিকট পেশ করা হবে, অনুমোদন গ্রহণের সময় সেই দিন হতে গণনা শুরু হবে এবং কর্তৃপক্ষের অনুমোদনের আদেশ পাওয়ার তারিখে উহা সমাপ্ত বলে গণ্য হবে। (The time taken for obtaining sanction shall commence from the day the case, with all necessary documents, is submitted for consideration of the appropriate authority and be deemed to end on the day of the receipt of the sanction order of the authority.)

(৬) ১৯৯২ সালের ৪২নং আইন দ্বারা বিলুপ্ত [Omitted by section 2 of the Criminal Procedure (Second Amendment) Act, 1992 (Act No. XLII of 1992).]

(৭) ১৯৯২ সালের ৪২নং আইন দ্বারা বিলুপ্ত [Omitted by section 2 of the Criminal Procedure (Second Amendment) Act, 1992 (Act No. XLII of 1992).]

(৭ক) ১৯৯২ সালের ৪২নং আইন দ্বারা বিলুপ্ত [Omitted by section 2 of the Criminal Procedure (Second Amendment) Act, 1992 (Act No. XLII of 1992).]

(৮) দণ্ডবিধি, ১৮৬০ (১৮৬০ সালের ৪৫ নং আইন) এর ৪০০ বা ৪০১ ধারার অধীন অপরাধের তদন্তের ক্ষেত্রে (৫) উপধারার বিধান প্রযোজ্য হবে না। [The provisions of sub-section (5) shall not apply to the investigation of an offence under section 400 or section 401 of the Penal Code, 1860 (Act XLV of 1860).]

Note-1: The words “nearest Judicial Magistrate” were substituted for the words “nearest Magistrate” by section 58(a) of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-2: The word `send` was substituted for the word `commit` by section 2 and Schedule of the Law Reforms Ordinance, 1978 (Ordinance XLIX of 1978)

Note-3: Sub-section (4) was substituted for sub-section (4) by section 58(b) of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-4: Sub-section (4A) after sub-section (4) was inserted by section 58(c) of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-5: Sub-section (5) was substituted for sub-section (5) by section 2 of the Code of Criminal Procedure (Second Amendment) Act, 1992 (Act No. XLII of 1992)

ধারা ১৬৮। অধস্তন পুলিশ অফিসার কর্তৃক তদন্তের রিপোর্ট (Report of investigation by subordinate police-officer):

কোন অধস্তন পুলিশ অফিসার এই অধ্যায় অনুসারে কোন তদন্ত করলে তিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে এই তদন্তের ফলাফল সম্পর্কে রিপোর্ট দিবেন। (When any subordinate police-officer has made any investigation under this Chapter, he shall report the result of such investigation to the officer in charge of the police-station.)

ধারা ১৬৯। অপর্যাপ্ত সাক্ষ্যের জন্য আসামীর মুক্তি (Release of accused when evidence deficient): এই অধ্যায় অনুসারে তদন্তের পর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার বা তদন্তকারী পুলিশ অফিসারের নিকট যদি প্রতীয়মান হয় যে, আসামীকে ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণে মতো পর্যাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণ বা যুক্তিসংগত সন্দেহের ভিত্তি নাই, তাহলে আসামী হেফাজতে থাকলে জামিনদারসহ বা জামিনদার ব্যতিত একটি মুচলেকা সম্পাদনের পর উক্ত অফিসার তাকে মুক্তি দিবেন, সেই মোতাবেক উক্ত অফিসার নির্দেশ দিবেন যে, কখনও প্রয়োজন হলে তার বিচারের জন্য বা তাকে বিচারে সোপর্দ করার জন্য অপরাধটি আমলে নিতে ক্ষমতাবান ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট হাজির হতে হবে। [If, upon an investigation under this Chapter, it appears to the officer in charge of the police-station or to the police-officer making the investigation that there is not sufficient evidence or reasonable ground of suspicion to justify the forwarding of the accused to a Magistrate, such officer shall, if such person is in custody, release him on his executing a bond, with or without sureties, as such officer may direct, to appear, if and when so required, before a Magistrate empowered to take cognizance of the offence on a police-report and to try the accused or (Note-1) send him for trial.]

Note-1: The word `send` was substituted, for the word `commit` by section 2 and Schedule of the Law Reforms Ordinance, 1978 (Ordinance No. XLIX of 1978)

ধারা ১৭০। সাক্ষ্য পর্যাপ্ত হলে মামলা ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করতে হবে (Case to be sent to Magistrate when evidence is sufficient):

(১) এই অধ্যায়ের অধীন তদন্তে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট যদি প্রতীয়মান হয় যে, উপযুক্ত মতে পর্যাপ্ত সাক্ষ্য বা যুক্তিযুক্ত কারণ আছে, তাহলে উক্ত অফিসার , হেফাজতে থাকা আসামীকে বিচারের জন্য বা বিচারে সোপর্দ করার জন্য পুলিশ রিপোর্টের ভিত্তিতে অপরাধ আমলে নিতে ক্ষমতাবাদ ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করবেন অথবা অপরাধ জামিনযোগ্য হলে এবং আসামী জামানত দিতে সমর্থ হলে কোন নির্ধারিত দিন উক্ত ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট হাজির হওয়ার জন্য এবং অন্যরূপ নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত দিনে দিনে হাজির থাকার জন্য তার নিকট হতে জামানত গ্রহণ করবেন। (If, upon an investigation under this Chapter, it appears to the officer-in-charge of the police-station that there is sufficient evidence or reasonable ground as aforesaid, such officer shall forward the accused under custody to a Magistrate empowered to take cognizance of the offence upon a police-report and to try the accused or (Note-1) send him for trial or, if the offence is bailable and the accused is able to give security, shall take security from him for his appearance before such Magistrate on a day fixed and for his attendance from day to day before such Magistrate until otherwise directed.)

(২) যখন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এই ধারার অধীন আসামীকে ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করেন অথবা উক্ত ম্যাজিষ্ট্রেটের সম্মুখে তার হাজির হওয়ার জন্য জামানত গ্রহণ করেন, তখন তিনি ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট হাজির করার প্রয়োজন হতে পারে এরূপ কোন অস্ত্র বা অন্যান্য দ্রব্য তার নিকট প্রেরণ করবেন এবং আসামীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ পরিচালনা বা সাক্ষ্য দিবার জন্য (যেখানে যেরূপ প্রযোজ্য) ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট হাজির হওয়ার উদ্দেশ্যে ফরিয়াদি (যদি থাকে) এবং ঘটনার অবস্থা সম্পর্কে জানেন এরূপ যে কোন সংখ্যককে তিনি প্রয়োজন বলে মনে করেন ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট হাজির হওয়ার নিমিত্তে একটি মুচলেকা সম্পাদন করবেন। (When the officer-in-charge of a police-station forwards an accused person to a Magistrate or takes security for his appearance before such Magistrate under this section , he shall send to such Magistrate any weapon or other article which it may be necessary to produce before him, and shall require the complainant (if any) and so many of the persons who appear to such officer to be acquainted with the circumstances of the case as he may think necessary, to execute a bond to appear before the Magistrate as thereby directed and prosecute or give evidence (as the case may be ) in the matter of the charge against the accused.)

(৩) মুচলেকায় চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট, জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট বা মহকুমা ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালত উল্লেখ করা হয়ে থাকলে উক্ত ম্যাজিষ্ট্রেট বিষয়টি অনুসন্ধান বা বিচারের জন্য প্রেরণ করবেন, সেই আদালতও ইহার অন্তর্ভুক্ত হবে, তবে শর্ত এই যে, উক্ত ফরিয়াদী বা ব্যক্তিগণকে এরূপ প্রেরণের যুক্তিসঙ্গত নোটিশ দিতে হবে। [If the Court of the (Note-2) Chief Metropolitan Magistrate, (Note-3) or the Chief Judicial Magistrate is mentioned in the bond, such Court shall be held to include any Court to which such Magistrate may refer the case for inquiry or trial, provided reasonable notice of such reference is given to such complainant or persons.]

(৪) [বাদ দেওয়া হয়েছে]

(৫) যে অফিসারের উপস্থিতিতে মুচলেকা সম্পাদন করা হয়েছে, তিনি সম্পাদনকারীদের মধ্যে কোন একজনকে উহার একটি নকল দিবেন এবং মূল মুচলেকাটি তার রিপোর্টের সাথে ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করবেন। (The officer in whose presence the bond is executed shall deliver a copy thereof to one of the persons who executed it, and shall then send to the Magistrate the original with his report.)

Note-1: The word `send` was substituted, for the word `commit` by section 2 and Schedule of the Law Reforms Ordinance, 1978 (Ordinance No. XLIX of 1978)

Note-2: The words and comma `Chief Metropolitan Magistrate,` were inserted by section 2 and Schedule of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Ordinance, 1976 (Ordinance No. LXXXVI of 1976)

Note-3: The words “or the Chief Judicial Magistrate” were substituted for the words “District Magistrate or Sub-divisional Magistrate” by section 59 of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

ধারা ১৭১। ফরিয়াদী এবং সাক্ষীদিগকে কোন পুলিশ অফিসারের সাথে যেতে বলা যাবে না (Complainants and witnesses not to be required to accompany Police-Officer):

(১) কোন ফরিয়াদী বা সাক্ষীকে ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে যাওয়ার পথে কোন পুলিশ অফিসারের সাথে যেতে বলা যাবে না। [(Note-1) (1) No complainant or witness on his way to the Court of the Magistrate shall be required to accompany a police-officer,]

Note-1: Section 171 was renumbered as sub-section (1) of that section by section 10 of the Code of Criminal Procedure (Second Amendment) Ordinance, 1982 (Ordinance No. XXIV of 1982)

ফরিয়াদী ও সাক্ষীদেরকে বাধা প্রদান করা যাবে না (Complainants and witnesses not to be subjected to restraint):

অথবা অনবশ্যক বাধা প্রদান করা যাবেনা বা অসুবিধায় ফেলা যাবে না, বা তার নিজের মুচলেকা ব্যতিত তার হাজিরের জন্য জামানত দাবী করা যাবে না। (or shall be subjected to unnecessary restraint or incon-venience, or required to give any security for his appearance other than his own bond:)

অবাধ্য ফরিয়াদী বা সাক্ষীকে হেফাজতে প্রেরণ করা যাবে (Recusant complainant or witness may be forwarded in custody):

তবে শর্ত এই যে, ১৭০ ধারার নির্দেশানুসারে কোন ফরিয়াদী বা সাক্ষী হাজির হতে বা মুচলেকা সম্পাদন করতে অস্বীকার করলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাকে হেফাজতে গ্রহণ করে শুনানি সমাপ্ত না হওয়া পর্যন্ত আটক রাখবেন। (Provided that, if any complainant or witness refuses to attend or to execute a bond as directed in section 170, the officer in charge of the police-station may forward him in custody to the Magistrate, who may detain him in custody until he executes such bond, or until the hearing of the case is completed.)

(২) (১) উপধারায় যাই থাকুক না কেন ফরিয়াদী বা সাক্ষী মামলা শুনানিকালে যাতে আদালতে হাজির হয় তা নিশ্চিত করা পুলিশ অফিসারের দায়িত্ব হবে। [(Note-1) (2) Notwithstanding anything contained in sub-section (1), it shall be the responsibility of the police-officer to ensure that the complainant or the witness appears before the Court at the time of hearing of the case.]

Note-1: Sub-section (2) was added by section 10 of the Code of Criminal Procedure (Second Amendment) Ordinance, 1982 (Ordinance No. XXIV of 1982)

ধারা ১৭২৷ তদন্তের বিবরণ সম্বলিত ডায়েরী (Diary of proceedings in investigation):

(১) এই অধ্যায়ের অধীন তদন্তকারী পুলিশ অফিসার প্রতিদিন ডায়েরীতে তার তদন্তের অগ্রগতি লিপিবদ্ধ করবেন, কখন তার নিকট খবর পৌঁছাল, কখন তিনি তদন্ত শুরু ও শেষ করলেন, কোন স্থা বা স্থানগুলি তিনি পরিদর্শন করলেন এবং তার তদন্তের মাধ্যমে যে অবস্থা সম্পর্কে তিনি নিশ্চিত হলেন। (Every police-officers making an investigation under this Chapter shall day by day enter his proceedings in the investigation in a diary setting forth the time at which the information reached him, the time at which he began and closed his investigation, the place or places visited by him, and a statement of the circumstances ascertained through his investigation.)

(২) যে কোন ফৌজদারী আদালত উক্ত আদালতে অনুসন্ধান বা বিচারাধীন কোন মামলার পুলিশ ডায়ের চেয়ে পাঠাতে পারেন এবং এই ডায়েরী সংশ্লিষ্ট মামলায় সাক্ষ্য প্রমাণ হিসাবে নয়, তবে উহার অনুসন্ধান বা বিচারের সহায়ক হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন। আদালত কেবল এই ডায়েরী দেখেছেন বা উহার প্রসঙ্গ উল্লেখ করেছেন বলেই আসামী বা তার প্রতিনিধি উহা চেয়ে পাঠানোর বা দেখবার অধিকারী হবেন না; তবে এই ডায়েরী প্রণয়নকারী পুলিশ অফিসার যদি তার স্মৃতি সজীব করার জন্য ব্যবহার করেন, অথবা আদালত যদি উক্ত অফিসারের বিরোধিতা করার জন্য উহা ব্যবহার করেন, তাহলে ১৮৭২ সালের সাক্ষ্য আইনের ১৬১ ধারা বা ১৪৫ ধারা, যেখানে যেরূপ প্রযোজ্য হবে। (Any Criminal Court may send for the police-diaries of a case under inquiry or trial in such Court and may use such diaries, not as evidence in the case, but to aid it in such inquiry or trial. Neither the accused nor his agents shall be entitled to call for such diaries, not shall he or they be entitled to see them merely because they are referred to by the Court; but, if they are used by the police-officer who made them, to refresh his memory or if the Court uses them for the purpose of contradicting such police-officer, the provisions of the Evidence Act, 1872, section 161 or section 145, as the case may be, shall apply.)

ধারা ১৭৩। পুলিশ অফিসারের রিপোর্ট (Report of police-officer):

(১) অনাবশ্যক বিলম্ব ছাড়াই এই অধ্যায়ের অধীন তদন্ত সমাপ্ত করতে হবে এবং ইহা সমাপ্ত হবার সঙ্গে সঙ্গে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা- (Every investigation under this Chapter shall be completed without unnecessary delay, and, as soon as it is completed, the officer in charge of the police-station shall-)

ক) পুলিশ রিপোর্টের ভিত্তিতে অপরাধটি আমলে আনার জন্য ক্ষমতাবান কোন ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ফরমে পক্ষসমূহের নাম, সংবাদের প্রকৃতি যারা ঘটনা জানে বলে প্রতীয়মান তাদের নাম এবং আসামীকে (যদি গ্রেফতারকৃত হয়) হেফাজতে প্রেরণ করা হয়েছে কিনা অথবা তাকে তার নিজ মুচলেকায় মুক্ত করা হয়েছে কিনা, এরূপ হয়ে থাকলে, জামিনদারসহ বা জামিনদার ব্যতিত তা উল্লেখ করে একটি রিপোর্ট প্রেরণ করবেন, এবং (forward to a Magistrate empowered to take cognizance of the offence on a police-report a report, in the form prescribed by the Government, setting forth the names of the parties, the nature of the information and the names of the persons who appear to be acquainted with the circumstances of the case, and stating whether the accused (if arrested) has been forwarded in custody or has been released on his bond, and, if so, whether with or without sureties, and)

খ) যে ব্যক্তি অপরাধ সংঘটন সম্পর্কে প্রথমে সংবাদ দিয়েছিলেন, সরকার কর্তৃক নির্ধারিত উপায়ে তাকে নিজের গৃহীত ব্যবস্থা অবহিত করবেন। (communicate, in such manner as may be prescribed by the Government, the action taken by him to the person, if any, by whom the information relating to the commission of the offence was first given.)

(২) যে ক্ষেত্রে ১৫ ধারার অধীন পুলিশের কোন উর্ধতন কর্মকর্তাকে নিয়োগ করা হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক সাধারণ বা বিশেষ আদেশ দ্বারা নির্ধারিত ক্ষেত্রসমূহে উক্ত অফিসারের মাধ্যমে রিপোর্ট পেশ করতে হবে এবং তিনি ম্যাজিষ্ট্রেটের আদেশ সাপেক্ষে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দিতে পারবেন। (Where a superior officer of police has been appointed under section 158, the report shall in any cases in which the Government by general or special order so directs, be submitted through that officer, and he may, pending the orders of the Magistrate, direct the officer-in-charge of the police-station to make further investigation.)

(৩) এই ধারার অধীন প্রেরিত রিপোর্টে যখন প্রতীয়মান হয় যে, আসামীকে তার নিজ মুচলেকায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে, তখন ম্যাজিষ্ট্রেট যেরূপ উপযুক্ত মনে করেন সেরূপ উক্ত মুচলেকা রহিত করার বা অন্য কোনরূপ আদেশ দিতে পারবেন। (Whenever it appears from a report forwarded under this section that the accused has been released on his bond, the Magistrate shall make such order for the discharge of such bond or otherwise as he thinks fit.)

(৩ক) যখন এইরূপ রিপোর্ট ১৭০ ধারায় প্রযোজ্য হয় এমন কোন বিষয় সম্পর্কিত হয়ে থাকে, তখন পুলিশ কর্মকর্তা রিপোর্টের সাথে ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট অগ্রবর্তী করবেন- [(Note-1) (3A) When such report is in respect of a case to which section 170 applies, the police-officer shall forward to the Magistrate along with the report-]

ক) তদন্তকালে ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট ইতিমধ্যে প্রেরিত হইয়েছে এমন দলিল বা দলিলের উদ্ধতাংশের উপর নির্ভর করার প্রস্তাব করেন ঐ সমস্ত দলিল বা দলিলের উদ্ধতাংশ; (all documents or relevant extracts thereof on which the prosecution proposes to rely other than those already sent to the Magistrate during investigation;)

খ) প্রসিকিউশন উহার সাক্ষী হিসাবে যে সমস্ত লোককে পরীক্ষা করার প্রস্তাব করেন ঐ সম্ত লোকের ১৬১ ধারার (ক) উপ ধারার অধীন লিপিবদ্ধ বিবৃতি। (the statements recorded under sub-section (3) of section 161 of all the persons whom the prosecution proposes to examine as its witnesses.)

(৩খ) এই ধারায় উল্লেখিত কোন কিছুই (১) উপধারার অধীন ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট কোন রিপোর্ট অগ্রবর্তী করার পরে কোন অপরাধ সম্পর্কে আরো তদন্ত করার ক্ষমতা নির্ধারিত করবে বলে অভিহিত হবে না, এবং এইরূপ তদন্তের ফলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরও সাক্ষও মৌখিক বা দালিলিক, পেয়ে থাকলে তিনি নির্ধারিত ফরমে উক্ত সাক্ষ্য বিষয়ে আরও রিপোর্ট বা রিপোর্টসমূহ ম্যাজিস্ট্রেটের বরাবরে অগ্রবর্তী করবেন; এবং (১) হইতে (৩-ক) উপধারার বিধানাবলী (১) উপধারার অধীন অগ্রবর্তীকৃত রিপোর্টের ক্ষেত্রে যেমন প্রযোজ্য হয় তেমনিভাবে যতদুর সম্ভব এইরূপ রিপোর্ট বা রিপোর্টসমূহের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। [Nothing in this section shall be deemed to preclude further investigation in respect of an offence after a report under sub-section (1) has been forwarded to the Magistrate and, whereupon such investigation, the officer in charge of the police-station obtains further evidence, oral or documentary, he shall forward to the Magistrate a further report or reports regarding such evidence in the form prescribed; and the provisions of sub-section (1) to (3A) shall, as far as may be, apply in relation to such report or reports as they apply in relation to a report forwarded under sub-section (1).]

(৪) অভিযুক্ত লোকের আবেদনক্রমে অনুসন্ধান বা বিচার শুরু হইবার পূর্বে তাহাকে এই ধারার অধীন অগ্রবর্তীকৃত কোন রিপোর্ট এর একটি অনুলিপি সরবরাহ করতে হবে। (a copy of any report forwarded under this section shall on application, be furnished to the accused before the commencement of the inquiry or trial:)

তবে শর্ত থাকে যে, কোন বিশেষ কারণে ম্যাজিস্ট্রেট উহা বিনামূল্যে সরবারাহ করার উপযুক্ত মনে না করলে উহার মূল্য পরিশোধ করতে হবে। (Provided that the same shall be paid for unless the Magistrate for some special reason thinks fit to furnish it free of cost.)

Note-1: Sub-sections (3A) and (3B) were inserted by section 2 and Schedule of the Law Reforms Ordinance, 1978 (Ordinance No. XLIX of 1978)

ধারা ১৭৪। আত্মহত্যা ইত্যাদি সম্পর্কে পুলিশ অনুসন্ধান করবে এবং রিপোর্ট দিবে (Police to inquire and report on suicide, etc):

(১) কোন থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার বা এই সম্পর্কে সরকার কর্তৃক বিশেষভাবে ক্ষমতাবান অন্য কোন পুলিশ অফিসার যদি সংবাদ পান যে, কোন ব্যক্তি- (The officer in charge of a police-station or some other police-officer specially empowered by the Government in that behalf, on receiving information that a person-)

ক) আত্মহত্যা করেছে, অথবা (has committed suicide, or)

খ) অন্য কোন ব্যক্তি কর্তৃক বা কোন প্রাণী কর্তৃক বা কোন যন্ত্রে বা দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে, অথবা (has been killed by another, or by an animal, or by machinery or by an accident, or)

গ) এরূপ অবস্থায় মারা গেছে যার ফলে যুক্তিসংগতভাবে সন্দেহ হতে পারে যে, অন্য কোন ব্যক্তি কোন অপরাধ করেছে। (has died under circumstances raising a reasonable suspicion that some other person has committed an offence,)

তাহলে সঙ্গে সঙ্গে সুরতহাল তদন্তের জন্য ক্ষমতাবান নিকটতম ম্যাজিষ্ট্রেটকে উহা জানাবেন এবং সরকারের নির্ধারিত কোন নিয়ম অথবা চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট, জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট বা মহকুমা ম্যাজিষ্ট্রেটের কোন সাধারণ বা বিশেষ আদেশ দ্বারা অন্যরূপ নির্দেশিত না হয়ে থাকলে যেখানে উক্তরূপে মৃত ব্যক্তির লাশ রয়েছে, সেই স্থানে গমন করবেন এবং সেখানে স্থানীয় দুই বা ততোধিক সভ্রান্ত ব্যক্তির উপস্থিতিতে তদন্ত চালাবেন এবং মৃত ব্যক্তির দেহের জখম, অস্থিভঙ্গ, থেতলাইয়া যাওয়া এবং অন্য জখমের চিহ্ন সম্পর্কে বর্ণনা করে এবং যে উপায়ে বা অস্ত্র বা যন্ত্র (যদি থাকে) দ্বারা উক্ত চিহ্নের সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে হয়, তার উল্লেখ করে মৃত্যুর দৃশ্যমান কারণ সম্পর্কে একটি রিপোর্ট প্রণয়ন করবেন। [shall immediately give intimation thereof to the (Note-1) nearest Executive Magistrate empowered to hold inquests, and, unless otherwise directed by any rule prescribed by the Government, or by any general or special order (Note-2) of the District Magistrate, shall proceed to the place where the body of such deceased person is, and there, in the presence of two or more respectable inhabitants of the neighborhood, shall make an investigation, and draw up a report of the apparent cause of death, describing such wounds, fractures, bruises and other marks of injury as may be found on the body, and stating in what manner, or by what weapon or instrument (if any), such marks appear to have been inflicted:]

তবে শর্ত এই যে, যেক্ষেত্রে শক্রর কার্যের দ্বারা কোন ব্যক্তির মৃত্যু ঘটে সেক্ষেত্রে সরকার অন্যভাবে নির্দেশ না দিলে এই উপধারা অনুসারে কোন তদন্ত করতে বা রিপোর্ট প্রস্তুত করতে বা সুরত হাল তদন্ত করতে ক্ষমতাবান ম্যাজিষ্ট্রেটকে অবহিত করার প্রয়োজন হবে না। (Provided that, unless the Government otherwise directs, it shall not be necessary under this sub-section, in any case where the death or any person has been caused by enemy action, to make any investigation or to draw up any report or to send any intimation to a Magistrate empowered to hold inquests.)

(২) উক্ত পুলিশ অফিসার ও উপস্থিত ব্যক্তিগণ অথবা তাদের মধ্যে যারা রিপোর্টের বর্ণনা সম্পর্কে একমত হন, তারা রিপোর্টে স্বাক্ষর দান করবেন এবং উহা সঙ্গে সঙ্গে চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট, জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট বা মহকুমা ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট প্রেরণ করতে হবে। [The report shall be signed by such police-officer and other persons, or by so many of them as concur therein, and shall be forthwith forwarded to (Note-3) the District Magistrate.]

(৩) মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে সন্দেহ থাকলে অথবা অন্য কোন কারণে এই সম্পর্কে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত নিয়ম সাপেক্ষে তিনি ময়না তদন্তের জন্য লাশটি নিকটতম সিভিল সার্জন বা সরকার কর্তৃক এই উদ্দেশ্যে নিযুক্ত অন্য কোন যোগ্যতাসম্পন্ন চিকিৎসকের নিকট প্রেরণ করবেন, তবে আবহাওয়ার অবস্থা ও দূরত্বের জন্য লাশটি যদি রাস্তায় পচে যাবার আশংকা থাকে যার ফলে ময়না তদন্ত অর্থহীন হয়ে পড়বে, তাহলে উহা প্রেরণ করার প্রয়োজন নাই। (When there is any doubt regarding the cause of death, or when for any other reason the police-officer considers it expedient so to do, he shall, subject to such rules as the Government may prescribe in this behalf, forward the body, with a view to its being examined, to the nearest Civil Surgeon, or other qualified medical man appointed in this behalf by the Government, if the state of the weather and the distance admit of its being so forwarded without risk of such putrefaction on the road as would render such examination useless.)

(৪) বাদ দেয়া হয়েছে। [Omitted by the Schedule of the Adaptation of Central Acts and Ordinances Order, 1949.]

(৫) নিম্নলিখিত ম্যাজিষ্ট্রেটগণ সুরতহাল তদন্ত পরিচালনা করতে ক্ষমতাবান যথাঃ চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট, যে কোন জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, মহকুমা ম্যাজিষ্ট্রেট বা প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিষ্ট্রেট এবং সরকার, চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট বাজেলা ম্যাজিষ্ট্রেট কর্তৃক এই বিষয়ে বিশেষভাবে ক্ষমতাবান যে কোন ম্যাজিষ্ট্রেট। [(Note-4) (5) The following Magistrates are empowered to hold inquest, namely, any District Magistrate or any other Executive Magistrate specially empowered in this behalf by the Government or the District Magistrate.]

Note-1: The words “nearest Executive Magistrate” were substituted for the words “nearest Magistrate” by section 60(a) of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-2: The words “of the District Magistrate” were substituted for the words and comma “the Chief Metropolitan Magistrate, the District Magistrate or Sub-divisional Magistrate” by section 60(a) of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-3: The words “the District Magistrate” were substituted for the words and comma “the Chief Metropolitan Magistrate, the District Magistrate or Sub-divisional Magistrate” by section 60(b) of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

Note-4: Sub-section (5) was substituted for sub-section (5) by section 60(c) of the Code of Criminal Procedure (Amendment) Act, 2009 (Act No. XXXII of 2009) (with effect from 1st November, 2007).

ধারা ১৭৫। লোকজনকে সমন করার ক্ষমতা (Power to summon persons):

১৭৪ ধারার অধীন অগ্রসর হওয়া পুলিশ অফিসার তদন্তের উদ্দেশ্যে উপরে বর্ণিত মতে দুই বা ততোধিক ব্যক্তিকে যিনি ঘটনা সম্পর্কে জানেন এরূপ অন্য যে কোন ব্যক্তিকে লিখিত আদেশ দ্বারা সমন করতে পারেন। এরূপে সমনকৃত প্রত্যেক ব্যক্তি হাজির হতে বাধ্য থাকবেন এবং যে সকল প্রশ্নের জবাব তাকে কোন ফৌজদারী অভিযোগ বা দণ্ড বা বাজেয়াপ্তির দিকে ঠেলে দিতে পারে, সেই সকল প্রশ্নের জবাব ছাড়া সমস্ত প্রশ্নের সঠিক জবাব দিতে বাধ্য থাকবেন। (A police-officer proceeding under section 174 may, by order in writing summon two or more persons as aforesaid for the purpose of the said investigation, and any other person who appears to be acquainted with the facts of the case. Every person so summoned shall be bound to attend and to answer truly all questions other than questions the answers to which would have a tendency to expose him to a criminal charge, or to a penalty or forfeiture.)

(২) ১৭০ ধারা প্রযোজ্য হতে পারে, ঘটনা যদি এরূপ কোন আমলযোগ্য অপরাধ প্রকাশ না করে তাহলে পুলিশ অফিসার উক্ত ব্যক্তিগণকে ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে হাজির হতে বলতে পারবেন না। (If the facts do not disclose a cognizable offence to which section 170 applies, such persons shall not be required by the police-officer to attend a Magistrate’s Court.)

ধারা ১৭৬। ম্যাজিষ্ট্রেট কর্তৃক মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধান (Inquiry by Magistrate into cause of death):

(১) কোন ব্যক্তি পুলিশের হেফাজতে থাকাকালে মারা গেলে সুরতহাল তদন্ত পরিচালনার ক্ষমতা সম্পন্ন নিকটতম ম্যাজিষ্ট্রেট অবশ্যই মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে পুলিশ অফিসার কর্তৃক তদন্ত ছাড়াও অথবা এরূপ তদন্তের অতিরিক্ত তদন্ত করবেন এবং ১৭৪ ধারার (১) উপধারার (ক), (খ) ও (গ) অনুচ্ছেদে উল্লিখিত অন্যান্য ক্ষেত্রে উক্তরূপে ক্ষমতাবান যেকোন ম্যাজিষ্ট্রেট মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে পুলিশ অফিসার কর্তৃক তদন্ত ছাড়াও অথবা এরূপ তদন্তের অতিরিক্ত তদন্ত করতে পারবেন এবং তিনি যদি এরূপ করেন তাহলে কোন অপরাধ তদন্তের ক্ষেত্রে তার যেরূপ ক্ষমতা থাকবে এক্ষেত্রেও তার সেরূপ ক্ষমতা থাকবে। এরূপ তদন্ত পরিচালনার সময় ম্যাজিষ্ট্রেট অবস্থা অনুসারে অতঃপর বর্ণিত পদ্ধতিসমূহের যে কোন একটি পদ্ধতিতে গৃহীত সাক্ষ্য লিপিবদ্ধ করবেন। (When any person dies while in the custody of the police, the nearest Magistrate empowered to hold inquests shall, and, in any other case mentioned in section 174, clauses (a), (b) and (c) of sub-section (1), any Magistrate so empowered may hold an inquiry into the cause of death either instead of, or in addition to, the investigation held by the police-officer, and if he does so, he shall have all the powers in conducting it which he would have in holding an inquiry into an offence. The Magistrate holding such an inquiry shall record the evidence taken by him in connection therewith in any of the manners hereinafter prescribed according to the circumstances of the case.)

কবর হতে লাশ উত্তলনের ক্ষমতা (Power to disinter corpses):

(২) যে লাশ ইতোমধ্যে কবরস্থ করা হয়েছে, উক্ত ম্যাজিষ্ট্রেট যদি মৃত্যুর কারণ আবিস্কারের জন্য তা পরীক্ষা করে দেখা প্রয়োজন বলে মনে করেন তাহলে তিনি লাশটি কবর হতে তুলার এবং উহা পরীক্ষা করে দেখার ব্যবস্থা করতে পারেন। (Whenever such Magistrate considers it expedient to make an examination of the dead body of any person who has been already interred, in order to discover the cause of his death, the Magistrate may, cause the body to be disinterred and examined.)

<<< পূর্ববর্তী পরবর্তী >>>

Check Also

পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী এবং জীবনযাত্রা সংশ্লিষ্ট ব্যয়ের বিবরণী, করবর্ষঃ ২০১৮-২০১৯