Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
Friday , September 20 2019

বর্গা চাষ, পর্ব-০২

লঙ্ঘনঃ

  • চুক্তি সম্পাদনের ব্যাপারে একমত হওয়ার পর চুক্তি সম্পাদনের জন্য সময় না পাওয়া।
  • জমি বর্গা দেওয়ার পর বর্গা জমি চাষ করতে না দেওয়া।
  • বর্গা জমি হতে উত্‌পন্ন ফসলের ভাগ না দেওয়া।
  • বর্গাকৃত জমিটি নির্ধারিত সময়ের জন্য ভোগ দখল করতে না দেওয়া।
  • চুক্তি সম্পাদন নিয়ে কোনো সমস্যার সৃষ্টি হলে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করতে বাধা দেওয়া।
  • বর্গাদার কোনো বর্গাচুক্তির কোন শর্ত লংঘন করলে জমির মালিককে বর্গা জমি ফিরিয়ে দিতে অস্বীকার করা।
  • সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ব্যক্তি যদি বর্গাজমির ফসল বিক্রির করার দায়িত্ব নিয়ে থাকে সেক্ষেত্রে বর্গাদারকে রশিদ প্রদান না করা।
  • বর্গা জমিটি যদি জমির বিক্রির ইচ্ছা পোষণ করে সেক্ষেত্রে জমিটি ক্রয়ের জন্য বর্গাদারকে সুযোগ না দেওয়া।
  • বর্গা জমির উৎপন্ন ফসল গোলাজাত করার জন্য জমির মালিক ও বর্গাদারের মধ্যে আলোচনা না করা।

প্রতিকারঃ

  • বর্গা জমি কিংবা বর্গা জমির চাষ সংক্রান্ত কোনো বিষয় নিয়ে কোন সমস্যার সৃষ্টি হলে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত কর্তৃপক্ষের নিকট যোগাযোগ করতে হবে।
  • সরকার কর্তৃক নির্ধারিত কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদত্ত কোন আদেশের ফলে যদি কোন ব্যক্তি অসন্তুষ্ট হন তাহলে তিনি আপিল করতে পারবেন।

কোথায় আপিল করতে হবে?

সরকার কর্তৃক নির্ধারিত আপিল কর্তৃপক্ষের নিকট।

কতদিনের মধ্যে?

সরকার কর্তৃক নির্ধারিত কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদত্ত আদেশের তারিখ হতে ৩০ দিনের মধ্যে।

<<< পর্ব-০১ পর্ব-০৩ >>>

Check Also

যে সকল দলিল রেজিস্ট্রেশনের জন্য বাধ্যতামূলক নয়

যে সকল দলিল রেজিস্ট্রেশনের জন্য বাধ্যতামূলক নয় যদিও ১৯০৮ সালের রেজিস্ট্রেশন এক্টে বলা হয়েছে যে …