Wednesday , December 11 2019

নারী ও শিশু অধিকার

নারী অধিকার (ক্ষতিপূরণ সংক্রান্ত), পর্ব-০৩ (শেষ পর্ব)

৭৷ প্রতিপক্ষকে নোটিশ প্রদানঃ যদি কমিশনার আবেদনকারীর আবেদন খারিজ না করেন তবে তিনি দরখাস্তের একটি কপি এবং শুনানীর তারিখ কবে হবে তা উল্লেখ করে প্রতিপক্ষের কাছে একটি নোটিশ পাঠাবেন। [১৯২৪ সালের ক্ষতিপূরণ বিধিমালার বিধি-২৬] ৮৷ প্রতিপক্ষের হাজিরা ও জবানবন্দীঃ নোটিশ পাবার পর প্রতিপক্ষ নোটিশের জবাবে তার জবাব লিখিত আকারে দিতে পারে আর যদি …

Read More »

নারী অধিকার (ক্ষতিপূরণ সংক্রান্ত), পর্ব-০২

যদি কোন শ্রমিক কাজের কারণে আহত হয় তবে তাকে নির্দিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তার ক্ষতিপূরণের দাবী জানাতে হবে। এজন্য কত দিনের মধ্যে কার কাছে এবং কিভাবে আবেদন করতে হবে সে ব্যাপারে ১৯২৩ সালের ক্ষতিপূরণ আইনের ধারা-১০ এ বলা হয়েছে। দুর্ঘটনা ঘটার পর যত শীঘ্র সম্ভব নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে ক্ষতিপূরণের আবেদন করতে হবে। …

Read More »

নারী অধিকার (ক্ষতিপূরণ সংক্রান্ত), পর্ব-০১

ক্ষতিপূরণ কি? সাধারনভাবে বলা যায়, কারখানা কিংবা শিল্প প্রতিষ্ঠানে কর্মরত অবস্থায় দুর্ঘটনার ফলে কোন শ্রমিক আহত হলে, তার আংশিক বা সম্পূর্ন দৈহিক অক্ষমতার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষ তাকে যে আর্থিক সহযোগীতা দিবে তাই ক্ষতিপূরণ। সংশ্লিষ্ট আইনঃ ১) ১৯২৩ সালের শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ আইন; ২) ১৯৫৫ সালের মারাত্নক দুর্ঘটনা আইন। ১৯২৩ সালের শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ আইন …

Read More »

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-১০

অন্যান্যদের দায়িত্ব ও কর্তব্যঃ কঠোর শাস্তির বিধান থাকলেও এসিড নিক্ষেপের ঘটনা বেড়েই চলেছে। এর অন্যতম কারণ হয়তো আইনের যথাযথ প্রয়োগের অভাব। এজন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো যথাযথভাবে আইনের প্রয়োগ নিশ্চিত করা। তাছাড়া এসিড নিক্ষেপে আহত হননি অথচ হুমকির মুখে বসবাস করছেন এমন নারীদের জন্যও আইনে ব্যবস্থা রাখতে হবে। এসিডদগ্ধ নারীর চিকিৎসার …

Read More »

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-৯

বিচার পদ্ধতিঃ ট্রাইব্যুনালে মামলার শুনানী শুরু হলে তা শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রতি কর্মদিবসে (ধার্য তারিখে) একটানা চলবে এবং ট্রাইব্যুনাল বিচারের জন্য মামলার নথি প্রাপ্তির তারিখ হতে ৯০ দিনের মধ্যে বিচার কাজ সমাপ্ত করবে। যদি কোন বিচারক বদলী হয়ে যায় সেক্ষেত্রে বিচারকার্য স্থগিত পর্যায় থেকে স্থলাভিষিক্ত বিচারক বিচার করবেন। অবস্থা …

Read More »

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-৮

মামলা দায়ের পদ্ধতিঃ থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তার নিকট এজাহার দায়েরের মাধ্যমে মামলার উদ্ভব হয়। এজাহার দায়ের করা হলে পুলিশ দ্রুত তা তদন্তের উদ্যোগ নিবেন।এজাহার সত্য না মিথ্যা তা যেহেতু কেবল তদন্তের পরই জানা যায় তাই পুলিশের কর্তব্য হলো এজাহার পাবার সংগে সংগে দ্রুত এসিড অপরাধ দমন  আইনের ১১ ধারার বিধান অনুসারে …

Read More »

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-৭

আদালতে মামলা দায়েরের মাধ্যমে প্রতিকারের জন্য যেখানে যেতে হবেঃ এই ধরনের অপরাধ বিচারের জন্য ২০০২ সালের নারী ও এসিড আপরাধ দমন আইনের অধীনে ‘এসিড অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল’ গঠন করা হয়েছে।যদি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অপরাধটি গ্রহন করতে সম্মত না হন তাহলে থানায় যে কারনে মামলাটি গ্রহন করা হয়নি সেই কারন থানা …

Read More »

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-৬

এজাহারের নমুনাঃ বরাবর, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাভার থানা, সাভার, ঢাকা৷ বিষয়: মামলার এজাহার দায়ের প্রসঙ্গে। বাদী: আয়াছ আলী (৪৫), পিতা-মৃত আশাক আলী, সাং-……….. উপজেলা-সাভার, জেলা-ঢাকা। বিবাদীঃ (১) কালু মিয়া (৩৪), পিতা-সাফাত মিয়া; (২) ফালু মিয়া (৩৮), পিতা-ঐ; (৩) বাবলু (২৭), পিতা-আক্কাছ মোল্লা। সাক্ষীঃ (১) সুরুজ মিয়া (৫৬), পিতা-আবু আব্বাস; (২) আলতাফ আলী (৫০), পিতা-সোয়া মিয়া; (৩) মঙ্গল …

Read More »

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-৫

এজারের শর্তাবলীঃ (১) এজাহারে উল্লেখিত অপরাধটি হবে আমলযোগ্য; (২) সংবাদটি বিস্তারিত না হল ও তা গ্রহণযোগ্য হবে; (৩) সংবাদটি লিপিবদ্ধ করতে হবে; (৪) লিপিবদ্ধ সংবাদের উপর সংবাদাতাকে স্বাক্ষর করতে হবে; (৫) নির্ধারিত ফরমে (বিপি-২৭) সংবাদটি লিপিবদ্ধ করতে হবে; (৬) সংবাদ লিপিবদ্ধ করার পর তা সংবাদদাতাকে পাঠ করে শুনাতে হবে। এজাহারের …

Read More »

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-৪

এজাহার গ্রহণে করণীয় বিষয়াবলীঃ পুলিশ রেগুলেশন বেঙ্গল (পিআরবি) ১৯৪৩ এর ২৪৩ প্রবিধান এবং ফৌজদারী কার্যবিধির ১৫৪ ধারায় এজাহার, এজাহারের শর্তাবলী বর্ণিত হয়েছে তা নিম্নে তুলে ধরা হলোঃ (১) আমলযোগ্য অপরাধের সংবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিপি ২৭ ফরমে লিপিবদ্ধ করবেন। (২) এজাহার হলো জিআর (জেনারেল রেজিস্টার) বা পুলিশী মামলার ভিত্তি।এখান থেকেই …

Read More »