Wednesday , December 11 2019

নারী ও শিশু অধিকার

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-৩

সংশ্লিষ্ট প্রতিকারঃ এজাহার দায়েরের মাধ্যমে প্রতিকার আদালতে মামলা দায়েরের মাধ্যমে প্রতিকার এজাহার দায়েরর মাধ্যমে প্রতিকারের জন্য যেখানে যেতে হবেঃ এসিড নিক্ষেপের সংবাদ পাওয়ার সংগে সংগে আপনার নিকটস্থ পুলিশ থানাতে গিয়ে বিষয়টি জানান।বিষয়টি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এজাহার হিসাবে গন্য করলে তিনি ঘটনাটি প্রাথমিক তথ্য বিবরনী ফরম বা I.R. ফরমে লিপিবদ্ধ করবেন এবং …

Read More »

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-২

এসিড নিক্ষেপ করা বা নিক্ষেপের চেষ্টা করার শাস্তিঃ এসিড অপরাধ দমন আইন,  ২০০২ এর (৬) ধারা মতে, যদি কোন ব্যক্তি অন্য কারও উপর এসিড নিক্ষেপ করে বা করার চেষ্টা করে এবং এর কারনে উক্ত ব্যক্তির শারীরিক, মানসিক বা অন্য কোনভাবে কোন ধরনের ক্ষতি না হলেও এসিড নিক্ষেপকাররী বা এসিড নিক্ষেপে চেষ্টাকারীর ৩-৭ …

Read More »

নারী অধিকার লংঘন ও প্রতিকার (প্রসঙ্গঃ এসিড নিক্ষেপ), পর্ব-১

এসিড হলো দহনকারী, ক্ষয়কারী ও বিষাক্ত যে কোন পদার্থ। সহজভাবে বলা যায় এসিড হলো গাঢ়, তরল অথবা মিশ্রনসহ যে কোন প্রকার সালফিউরিক এসিড, হাইড্রোক্লোরিক এসিড, নাইট্রিক এসিড, ফসফরিক এসিড, ক্ষার জাতীয় কস্টিক সোডা, কস্টিক পটাশ, কার্বলিক এসিড, ব্যাটারী ফ্লুইড (এসিড), ক্রোমিক এসিড ও একোয়া-রেজিয়া এবং সরকার কর্তৃক নির্ধারিত এসিড জাতীয় …

Read More »

নারী অধিকার (পারিশ্রমিক বা মজুরী সংক্রান্ত), পর্ব-৫

১৯৬৫ সালের শ্রমিক নিয়োগ (স্থায়ী আদেশ) আইন অনুযায়ী যদি কখনও কারখানায় অগ্নিকান্ড, আকস্মিক বিপদ ঘটে, যন্ত্রপাতি বিকল হয়ে যায়, বিদ্যুত্‍ ‍সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়, মহামারী বা অসামরিক হাঙ্গামা সংঘটিত হয় অথবা কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রণ বহির্ভূত অন্য কোন কারণ ঘটে তবে মালিক বা কর্তৃপক্ষ কর্তৃপক্ষ উক্ত কারখানা সম্পূর্ণ বা যেকোন অংশ বা অংশসমূহ …

Read More »

নারী অধিকার (পারিশ্রমিক বা মজুরী সংক্রান্ত), পর্ব-৪

যে সব ক্ষেত্রে মজুরী দেয়া যাবে নাঃ ১৯৩৬ সালের মজুরী পরিশোধ আইনের ১৫ (৩) উপধারায় বলা আছে যেখানে যেখানে মজুরী দেয়া যায় না, যেমনঃ মজুরীর ব্যাপারে প্রকৃত কোন ভুল ভ্রান্তি থাকলে বা কোন বিরোধ থাকলে, অথবা এমন কোন জরুরী বা অস্বাভাবিক অবস্থার সৃষ্টি হয়েছিল যার কারণে যুক্তিসংগত ভাবে চেষ্টা করা সত্বেও মজুরী …

Read More »

নারী অধিকার (পারিশ্রমিক বা মজুরী সংক্রান্ত), পর্ব-৩

কখন মজুরী কাটা যাবেঃ যে সব ক্ষেত্রে কাজে নিয়োজিত কোন ব্যক্তির মজুরী কেটে নেয়া যাবে তা ১৯৩৬ সালের মজুরী পরিশোধ আইনের ৭ ধারায় বলা আছে। তবে ১৮৯০ সালের রেলওয়ে আইনের ৪৭ (২) ধারার বিধান থাকা সত্বেও ১৯৩৬ সালের মজুরী পরিশোধ আইন দ্বারা বা এই আইনে যদি নিষেধ করা না থাকে তবে …

Read More »

নারী অধিকার (পারিশ্রমিক বা মজুরী সংক্রান্ত), পর্ব-২

১৯৩৬ সালের মজুরী পরিশোধ আইন অনুযায়ী মজুরীর সংজ্ঞাঃ মজুরী বলতে ১৯৩৬ সালের মজুরী পরিশোধ আইনের ২(৬) ধারায় বলা হয়েছে যে, কোন শ্রমিককে তার চাকরির শর্ত পূরণ সাপেক্ষে, তার আচরণ, নিয়মিত কাজে উপস্থিতি, তার ভাল ব্যবহার এবং তার কাজের উপর ভিত্তি করে তাকে যে অর্থ প্রদান করা হয় তা মজুরী হিসাবে বিবেচিত হবে। …

Read More »

নারী অধিকার (পারিশ্রমিক বা মজুরী সংক্রান্ত), পর্ব-১

যখন থেকে শ্রম, মালিক এবং শ্রমিকের সূচনা তখন থেকেই পারিশ্রমিক বা মজুরীর সৃষ্টি। সাধারন ভাষায় মজুরী হলো কর্মক্ষেত্রে কাজের বিনিময়ে অর্থ প্রাপ্তি। অর্থাত্‍  চাকরির্ শর্ত পূরণ সাপেক্ষে যা কিছু পরিশোধযোগ্য তাই মজুরী। ১৯৩৬ সালের মজুরী পরিশোধ আইনের ২(৬) ধারায় মজুরীর সংজ্ঞা প্রদান করা হয়েছে৷ সেখানে বলা হয়েছে, মজুরী বলতে অর্থ …

Read More »

আপনি জানেন কি গর্ভপাত একটি দন্ডনীয় অপরাধ?

laws of bangladesh

গর্ভপাত কি? সাধারনভাবে কোন নারীর গর্ভস্থ ভ্রুণ নষ্ট করাকে গর্ভপাত বলা হয়। যদি কোন নারীর গর্ভে ভ্রুণ সৃষ্টির পর থেকে গর্ভকাল পূরন হওয়ার আগেই গর্ভস্থ ভ্রুণ অপসারণ করা হয় তাহলে তাকে গর্ভপাত বলে। বাংলাদেশে গর্ভপাতকে শর্তসাপেক্ষে (যেমন-গর্ভবতী নারীর জীবন রক্ষার উদ্দেশ্যে) বৈধতা দেয়া হয়েছে। এই শর্ত ব্যতীত দন্ডবিধি অনুযায়ী নারীর …

Read More »

অশালীন আচরণের শিকার? জেনে নিন কি করবেন?

law and court

‘অশালীন আচরণ’ শব্দের কোনোরূপ ব্যাখ্যা আইনের কোনো ধারাতেই সুস্পষ্টভাবে বলা হয়নি। তবে দন্ডবিধির ৩৫৪ ধারায় এ সম্পর্কে ধারনা দেওয়া হয়েছে মাত্র। ধারাটি হলো ‘কোনো নারীর শালীনতা নষ্ট করার উদ্দেশ্যে আক্রমন ও তার প্রতি অপরাধমূলক বল প্রয়োগই হচ্ছে অশালীন আচরণ৷ সাধারণভাবে বলা যায়, আমাদের সামাজিক রীতিনীতি কিংবা আচার-আচরণের সঙ্গে মানানসই নয়, …

Read More »