Thursday , August 13 2020

ভূমি অধিকার

যে সকল দলিল রেজিস্ট্রেশনের জন্য বাধ্যতামূলক নয়

যে সকল দলিল রেজিস্ট্রেশনের জন্য বাধ্যতামূলক নয় যদিও ১৯০৮ সালের রেজিস্ট্রেশন এক্টে বলা হয়েছে যে উইল ব্যতীত সকল দলিল সম্পাদনের তারিখ হতে ৪ মাসের মধ্যে রেজিস্ট্রেশন বাধ্যতামূলক তথাপিও কিছু কিছু দলিল রেজিস্ট্রির জন্য বাধ্যতামূলক নয় সেগুলি হলঃ ১. কোন রাজস্ব আদালতের বাটোয়ারা কার্যক্রমে পক্ষগণ কর্তৃক কোন সোলেনামা সম্পাদিত হয়ে থাকলে …

Read More »

জেনে নিন দলিল লেখার সময় ক্রেতাকে যে সকল বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে

দলিল লেখার সময় ক্রেতাকে যে সকল বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে ১. দলিল সম্পাদনকারী তথা জমি দাতা (বিক্রেতা) আইনের দৃষ্টিতে সাবালক ও সুস্থ মস্তিষ্কে সম্পন্ন কিনা তা যাচাই করে নিতে হবে৷ ২. পুরাতন দলিল এবং নতুন দলিলের বিভিন্না জায়গা যেমন (ক) শিরোনাম (খ) সাফ কবলা (গ) বায়না পত্র ইত্যাদি খেয়াল করতে …

Read More »

ভূমি জরিপ কি?

ভূমি জরীপ কি? জমি সংক্রান্ত বিষয়টি খুব স্পর্শকাতর৷ বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ থেকে উচ্চ বিত্ত কিংবা উচ্চ শিক্ষিত মানুষও ব্যক্তিগতভাবে নিজেদের জমির উপর তাদের স্বত্ব আছে কিনা? কত পরিমাণ স্বত্ব আছে? সেই হিসাব বুঝে নেয়ার জন্য সব সময়ই সজাগ৷ যেহেতু জমির স্বত্বের হিসাবের ব্যাপারে প্রত্যেকটি মানুষই খুব সজাগ তাই জমির পরিধি …

Read More »

ভূমি (Land) কি?

ভূমি (Land) কি? আমরা সাধারণ ভাষায় ভূমি বলতে আবাদি কিংবা অনাবাদি জমিকেই বুঝি। কিন্তু ভূমি বা জমি কথাটির অর্থ অত্যন্ত ব্যাপক। ভূমি বলতে যা বুঝানো হয়েছে তা হলো, যে ভূমি আবাদি, অনাবাদি অথবা বত্‍সরের যে কোন সময় জল দ্বারা নিমজ্জিত থাকে এবং ভূমি/জমি হতে উত্‍পন্ন সুবিধাদি সহ, বাড়ী ঘর দালান …

Read More »

বন্টন দলিল ও বাটোয়ারা মোকদ্দমার বিধান

বন্টন দলিল কি? যখন কোন সম্পত্তির অংশীদারগণ তাদের সম্পত্তি ব্যক্তিগত মালিকানায় পৃথকভাবে ভাগ করে নিতে সম্মত হয়ে কোন দলিল প্রস্তুত করে তখন তাকে বণ্টন দলিল বলে। ১৮৯৯ সালের স্ট্যাম্প আইনের ২(১৫) ধারায় বলা হয়েছে বণ্টন দলিল ও বণ্টক দলিল অর্থ একই। বণ্টন সম্পন্ন হওয়ার শর্তঃ সীমানা চিহ্নিতকরণ বা পরিমাপ দ্বারা …

Read More »

ওয়াকফ সংক্রান্ত অধিকার লঙ্ঘন ও প্রতিকার

ওয়াকফ কিঃ ওয়াকফের শাব্দিক বাংলা অর্থ হলো নিরোধ। অন্যভাবে ওয়াকফ কথাটির অর্থ হলো সম্পত্তি থেকে আয়কৃত অর্থকে পবিত্র ভাবে উত্‍সর্গ করা। ১৯৬২ সালের ওয়াকফ অধ্যাদেশ এর ২ ধারায় বলা হয়েছে যে, কোনো মুসলমান কর্তৃক ধর্মীয়, পবিত্র বা দাতব্য কাজের উদ্দেশ্যে তার স্থাবর বা অস্থাবর সম্পত্তি স্থায়ী ভাবে উত্‍সরর্গ করাকে বুঝায়। তবে কোনো …

Read More »

বর্গা চাষ, পর্ব-০৮

নির্ধারিত কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট না হলে প্রতিকারঃ ১৯৮৪ সালের ভূমি সংস্কার অধ্যাদেশের কোনো বিধানের অধীনে যদি নির্ধারিত কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদত্ত কোনো আদেশ, সিদ্ধান্ত বা ব্যবস্থা গ্রহণের ফলে কোনো ব্যক্তি সন্তুষ্ট না হন তাহলে সংক্ষুদ্ধ ব্যক্তি উক্ত আদেশ বা সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন। {১৯৮৪ সালের ভূমি সংক্রান্ত অধ্যাদেশের ১৭(২) ধারা} কত …

Read More »

বর্গা চাষ, পর্ব-০৭

জমি বর্গা নেয়ার সীমাবদ্ধতাঃ কোন বর্গাদারই ১৫ বিঘার বেশী জমি বর্গাচাষের জন্য গ্রহণ করতে পারবেন না। (১৯৮৪ সালের ভূমি সংক্রান্ত অধ্যাদেশের ১৪ ধারা) চাষ কার্যে বাধা নিষেধঃ বর্গা চাষের সংগে জরিত ব্যক্তি বর্গাচুক্তির অধীনে চাকুরে বা শ্রমিক হিসাবে জমি চাষ করবেন। যদি কোনো ব্যক্তি এই ধারার নিয়মাবলী লংঘন করে জমি চাষ করেন তাহলে নির্ধারিত …

Read More »

বর্গা চাষ, পর্ব-০৬

বর্গাদারের ক্রয়াধিকারঃ যদি কোনো বর্গাজমির মনিব তার বর্গাজমি বিক্রি করার ইচ্ছা পোষন করেন সেক্ষেত্রে তিনি বর্গাদারকে লিখিত ভাবে জানাবেন যে তিনি (বর্গাদার) উক্ত জমি ক্রয় করতে ইচ্ছুক কিনা, তবে মনিব যদি তার কোনো সহ শরিক বা পিতা, মাতা, স্ত্রী পুত্র কন্যা বা পৌত্রের নিকট বা তার পরিবারের অপর কোনো সদস্যের নিকট …

Read More »

বর্গা চাষ, পর্ব-০৫

বর্গা জমির উত্‍পন্ন ফসলের ভাগ এবং ফসলের ভাগ সংক্রান্ত বিষয়ে যা যা করণীয়ঃ বর্গা জমিটি চাষ করার জন্য চাষের ব্যয় ভার যে বহন করবে সে অবশিষ্ট ১/৩ অংশ ফসলের ভাগ পাবে অথবা যদি উভয় পক্ষই চাষের ব্যয়ভার বহন করে তাহলে অবশিষ্ট ১/৩ অংশ উৎপন্ন ফসলের ভাগ ব্যয়ভারের আনুপাতিক হারে পাবে। …

Read More »

আপনার ডিভাইসে ইন্টারনেট সংযোগ চালু করুন।