Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
Saturday , July 20 2019

এন,আই এ্যাক্ট এর ১৩৮/১৪০ ধারা মোতাবেক চেক ডিজঅনারের মামলা

বিঃদ্রঃ নিম্নে ড্রাফটিং এর কাল্পনিক তথ্য পর্যাক্রমিকভাবে উপস্থাপন করা হল এবং এই তথ্যগুলো কিভাবে সাজিয়ে লিখতে হয় তা পিডিএফ ফাইলের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হল। আশাকরি সকলেই উপকৃত হবেন।

 

হেতুবাদসমূহঃ

১। অত্র মামলার বাদী একজন সহজ, সরল ও আইন মান্যকারী ব্যক্তি হইতেছেন বটে। অপরপক্ষে আসামীগন পরধন লোভী, প্রতারক, পরসম্পদ আত্মসাৎকারী ও আইন অমান্যকারী প্রকৃতির লোক হইতেছেন বটে।

২। অত্র মামলার আসামীগন মেসার্স ——————- এর মালিক ও অংশীদার বটে। উক্ত প্রতিষ্ঠানের অংশীদার হওয়ার কারনে ২, ৩ ও ৪নং আসামীগন এর সমন্বয়ে গঠিত পরিচালনা বোর্ডের মাধ্যমে ব্যবসা করিয়া আসিতেছেন।

৩। আসামীগনের সহিত বাদী পূর্ব পরিচিত এবং ব্যবসায়িক কারণে সুসস্পর্ক বিদ্যমান থাকায় আসামীগনের ব্যবসায়িক প্রয়োজনে নগদ অর্থের প্রয়োজন হলে বাদীর নিকট পূর্ব পরিচয়ের সুবাদে নগদ ২,৯৫,৪০০/- (দুই লক্ষ পচাঁনব্বই হাজার চারশত) টাকা হাওলাদ/ধার চাহিলে আসামীগণ পরিশোধের শর্তে বাদী নগদ টাকা দিতে সম্মত হয় এবং আসামীগন উক্ত টাকা গ্রহন করিয়া ব্যবসা পরিচালনা করিয়া আসিতে থাকা অবস্থায় বাদীর উক্ত টাকা প্রয়োজন হইলে আসামীগনকে তায় তাগাদা প্রদান করিলে গত ২৭/১২/২০১০ইং তারিখে মেসার্স ————— ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামে ২,৯৫,৪০০/- (দুই লক্ষ পচাঁনব্বই হাজার চারশত) টাকা চেক প্রদান করেন। যাহা চেক নং- XXXXXXX ব্রাক ব্যাংক লিঃ চলতি হিসাব নং- XXXXXXX।

৪। উক্ত চেকটি নগদায়নের জন্য গত ০৬/০১/২০১১ ইং তারিখ ব্রাক ব্যাংক লিঃ আসাদগেট শাখায় জমা দান করিলে ওহংঁভভরপরবহঃ ঋঁহফ মন্তব্য করতঃ ডিজঅনার করিয়া ডিজঅনার মেমোসহ বাদীকে চেকটি ফেরত প্রদান করেন।

৫। উক্ত বিষয়ে আসামীগনকে মৌখিকভাবে জ্ঞাত করিলে দেই দিচ্ছি বলে ঘুরাইতে থাকে। ফলে গত ২৭/০১/২০১১ইং তারিখে বিজ্ঞ আইনজীবীর মাধ্যমে ০৬/০১/২০১১ইং তারিখে ডিজঅনারকৃত চেকের বিষয়ে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করিলে উক্ত নোটিশ বিবাদী গত ০২/০২/২০১১ইং তারিখে প্রাপ্ত হইয়া প্রাপ্তী স্বীকারপত্র ফেরত আসে। কিন্তু আসামীগন লিগ্যাল নোটিশের কোন জবাব কিংবা টাকা প্রদান করেন নাই।

৬। অত্র মামলার আসামীগন সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র ও আত্মসাৎকারী হইতেছে মর্মে বাদীর বিশ্বাস বাদীর টাকা পরিশোধ না করিয়া প্রতারনার মাধ্যমে আত্মসাৎ করিবে। ফলে, বিজ্ঞ আদালতে মামলা করিতে বাধ্য হয় এবং উক্ত আদালতের এখতিয়ারাধীন। উক্ত আসামীগনের বিরুদ্ধে এন,আই,এ্যাক্ট এর ১৩৮ ধারার বিষটি আমলে নিয়া বাদীর টাকা আদায় করা একান্ত আবশ্যক।

প্রার্থনাঃ

অতএব প্রার্থনা, হুজুর দয়া প্রকাশে ন্যায় বিচারের স্বার্থে অত্র আসামীগনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা ইস্যূ করিয়া বাদীর প্রতি সুবিচার করতঃ বাদীর টাকা আদায় করিয়া দেওয়ার আদেশ দিতে সদয় মর্জি হয়।
ইতি, তাং————।


Check Also

মুসলিম বিবাহের হলফনামা সংক্রান্ত একটি লিগ্যাল ড্রাফটিং

ড্রাফটিং এর বিষয়ঃ মুসলিম বিবাহের হলফনামা সংক্রান্ত একটি লিগ্যাল ড্রাফটিং সাবলীলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। বরাবর, …